কনের বাড়িতে শেকলবন্দি বাবাসহ বরকে উদ্ধার

20

চাঁদপুরে এক কনের বাড়িতে পাঁচ দিন শেকল বন্দি থাকার পর বর ও তার বাবাকে উদ্ধার করেছে পুলিশ। গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে কচুয়া উপজেলার গোহাট উত্তর ইউনিয়নের খিলা গ্রামের পাঁওয়ারী বাড়ি থেকে সমঝোতার ভিত্তিতে তাদের উদ্ধার করা হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ। উদ্ধার হওয়া বর শিপন ময়মনসিংহ জেলার ফুলপুর উপজেলার রামসোনা গ্রামের মিলন মিয়ার ছেলে।
কচুয়া থানার ওসি ওয়ালী উল্লাহ ওলী জানান, কাভার্ডভ্যান চালক শিপনের সাথে চাঁদপুরের খিলা গ্রামের হালিমার মোবাইল ফোনের মাধ্যমে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। তিন মাস আগে তারা ১ লাখ ১০ হাজার টাকা দেনমোহরে কাবিন করে বিয়েও করেন। বিয়ের পর নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লায় দেলপাড়াতে এক ভাড়া বাসায় থাকতেন তারা। এক সময় তাদের মধ্যে দাম্পত্য ঝগড়া হলে হালিমা তার বাবার বাড়ি চলে আসেন। গত শনিবার বর শিপন তার স্ত্রীকে আনতে শ্বশুরবাড়ি গেলে হালিমাকে মারধরের অভিযোগ এনে কনেপক্ষের লোকজন তার পায়ে শিকল দিয়ে বেঁধে বাড়ির এক কক্ষে তালা দিয়ে আটকে রাখে। এ খবর পেয়ে ময়মনসিংহ থেকে গত সোমবার শিপনের বাবা সেই বাড়িতে গেলে কনেকে তালাক দেওয়ার কথা তুলে দেনমোহরের ১ লাখ ১০ হাজার টাকা দাবি করেন এবং শিপনের বাবা মিলনকেও শেকল দিয়ে বেঁধে আটকে রাখেন তারা।
এ খবর জানতে পেরে গত বুধবার বিকেলে তাদের উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে পুলিশ বলে জানান তিনি। গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে বর ও কনের পরিবারের লোকজনের সাথে কথা বলে তাদের দাম্পত্য সমস্যার সমাধান করা হয়। ওই স্বামী-স্ত্রীকে মিলিয়ে দেওয়ার পর দুইপক্ষ একে অপরকে মিষ্টিমুখ করান। এরপর বর ও তার বাবাকে কনেদের বাড়ি নিয়ে যায় তারা- জানান তিনি। খবর বিডিনিউজের