কক্সবাজার রুটে যাত্রীবাহী ট্রেন চলবে ১ ডিসেম্বর

8

ঢাকা ও চট্টগ্রাম থেকে পর্যটননগরী কক্সবাজার রুটে যাত্রীবাহী ট্রেন চলাচল করবে ১ ডিসেম্বর থেকে। শুরুতে ঢাকা ও চট্টগ্রাম থেকে একটি করে দুটি ট্রেন চালানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ।
রেলওয়ে পূর্বাঞ্চলের জেনারেল ম্যানেজার (অতিরিক্ত দায়িত্ব) মোহাম্মদ নাজমুল ইসলাম বলেন, ১ ডিসেম্বর থেকে কক্সবাজার রুটে ট্রেন চালাতে আমরা প্রস্তুত। প্রথম ট্রেনটি চলাচল শুরু করবে ঢাকা থেকে। দ্বিতীয় বাণিজ্যিক ট্রেনটি চলবে কক্সবাজার থেকে চট্টগ্রাম। পর্যায়ক্রমে বাকি ট্রেনগুলো চালানো হবে।খবর বাংলানিউজ’র
রেলওয়ে সূত্র জানায়, ঢাকা থেকে কক্সবাজার পর্যন্ত চলবে বিরতিহীন ট্রেন। কমলাপুর স্টেশন থেকে আন্তঃনগর ট্রেন ছাড়বে রাত সাড়ে ১০টায়। এই ট্রেন শুধু ঢাকা বিমানবন্দর ও চট্টগ্রাম স্টেশনে যাত্রাবিরতি দেবে। এরপর সরাসরি চলে যাবে কক্সবাজার।
সেখানে পৌঁছাবে পরদিন সকাল ৬টা ৪০ মিনিটে। একইভাবে কক্সবাজার থেকে ছাড়বে বেলা ১টায়, আর ঢাকায় পৌঁছাবে রাত ৯টা ১০ মিনিটে। ভাড়া ৭৭১ থেকে ১ হাজার ৭২৫ টাকা। এই বিরতিহীন আন্তঃনগর ট্রেনটিতে ১৮টি কোচ থাকবে। আসন ৭৭৯ থেকে ৮২৪টি।
চট্টগ্রাম থেকে কক্সবাজারের উদ্দেশে প্রতিদিন সকাল ৭টায় ট্রেন চলাচল করবে। ট্রেনে কোচ ১৫টি। এটি পৌঁছাবে সকাল ১০টা ২০ মিনিটে। আর কক্সবাজার থেকে চট্টগ্রামের উদ্দেশে ট্রেন ছাড়বে সন্ধ্যা ৭টায়। ভাড়া ২০৫ থেকে ৬৯৬ টাকা।
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা শনিবার কক্সবাজারে নবনির্মিত রেলপথ প্রকল্প উদ্বোধন করেন। এ সময় তিনি ঢাকা ও চট্টগ্রাম থেকে একটি করে ট্রেন চালুর নির্দেশনা দেন। এর পরিপ্রেক্ষিতে প্রকল্পের কাজ শতভাগ শেষ না হলেও যাত্রীবাহী ট্রেন সার্ভিস চালুর উদ্যোগ নেওয়া হয়।
ঢাকা থেকে শোভন চেয়ারের টিকিট ৫০০ টাকা, এসি চেয়ার (স্নিগ্ধা) ৯৬১ টাকা, প্রথম শ্রেণীর চেয়ার ৭৭১ টাকা, প্রথম শ্রেণীর বার্থ/সিট ১১৫০ টাকা এবং এসি বার্থের টিকিট ১ হাজার ৭২৫ টাকা। চট্টগ্রাম-কক্সবাজার পর্যন্ত আন্তঃনগর ট্রেনে শোভন চেয়ারের টিকিট ২০৫ টাকা, প্রথম শ্রেণীর চেয়ার/সিট ৩১১ টাকা, প্রথম শ্রেণীর বার্থ ও এসি সিট ৪৬৬ টাকা, এসি চেয়ার (স্নিগ্ধা) ৩৮৬ টাকা এবং এসি বার্থ টিকিট ৬৯৬ টাকা।