কক্সবাজারে ভুয়া কারাপরিদর্শক দম্পতি আটক

74

কক্সবাজার হোটেল-মোটেল জোনে কলাতলীর ডলফিন মোড়ে অবস্থিত হোটেল সী ক্রাউন থেকে কারাপরিদর্শক পরিচয়দানকারী দুইজন টাউটকে আটক করেছে পুলিশ। পুলিশ জানায়, আটককৃত রিয়াদ বিন সেলিম ও শাহনাজ পারভীন মায়া দুইজন স্বামী-স্ত্রী। তারা চট্টগ্রামের পটিয়ার বাসিন্দা।
হোটেল সী-ক্রাউন কর্তৃপক্ষের বরাত দিয়ে কক্সবাজার জেলা কারাগারের তত্ত¡াবধায়ক বজলুর রশীদ আখন্দ জানান, হোটেলে অবস্থানরত স্বামী-স্ত্রী নিজেদের সিনিয়র কারাপরিদর্শক হিসেবে পরিচয় দেন এবং গত ২১ তারিখ তারা ওই হোটেলে উঠেন। হোটেলে অবস্থান করার পর থেকে খাবার-দাবারসহ যাবতীয় কিছু বাকিতে ভোগ করছিলেন। নিয়ম মোতাবেক তাদের কাছ থেকে রুম ভাড়া আর খাবারের টাকা চাওয়া হলে তারা আজ দিবে কাল দিবে বলে হোটেল কর্তৃপক্ষকে সময় দিতে থাকেন।
বজলুর রশীদ আখন্দ আরোও বলেন, কর্তৃপক্ষ আমাকে বিষয়টি জানালে তৎক্ষণাৎ ফোর্স নিয়ে ঘটনাস্থলে যাই। পরবর্তীতে তাদের বক্তব্যে সন্দেহ হলে তাদেরকে চ্যালেঞ্জ করে আসল পরিচয় জানতে চাইলে তারা অসংলগ্ন কথাবার্তা বলে। বিষয়টি আমি অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ইকবাল হোছাইনকে অবগত করলে তিনি সদর মডেল থানার অপারেশন অফিসার ইয়াছিনকে ফোর্সসহ ঘটনাস্থলে পাঠান।
এ ব্যাপারে কক্সবাজার সদর মডেল থানার অপারেশন অফিসার ইয়াছিন জানান, স্বামী-স্ত্রী দু’জনই সিনিয়র কারাপরিদর্শক হিসেবে ভুয়া পরিচয় প্রদান করে উক্ত হোটেলে ১৩ দিন অবস্থান করছেন। বিষয়টি খুবই জটিল। কারণ চট্টগ্রামে স্থায়ী বাসিন্দা হলে কক্সবাজারে কোনো কাজ ছাড়া ১৩ দিন থাকা অস্বাভাবিক। এর পেছনে মাদকের কোনো সংশ্লিষ্টতা আছে কিনা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। আটককৃত রিয়াদ বিন সেলিমের বিরুদ্ধে চট্টগ্রামের আকবর শাহ থানায় ধর্ষণ ও অপহরণের মামলা রয়েছে বলে জানায় পুলিশ।