এশিয়ায় চীন-রাশিয়ার বোমারু বিমানের যৌথ টহল

6

পরদেশ ডেস্ক

জাপান সাগর ও পূর্ব চীন সাগরে যৌথ টহল দিয়েছে রাশিয়া ও চীনের দুরপাল্লার টুপোলেভ-৯৫ বোমারু বিমানসহ কৌশলগত যুদ্ধবিমান। বুধবার রাশিয়ার প্রতিরক্ষামন্ত্রণালয় একথা জানিয়েছে। দক্ষিণ কোরিয়ার সেনাবাহিনী এর আগে জানিয়েছিল, চীনের দুটি ও রাশিয়ার ছয়টি যুদ্ধবিমান তাদের আকাশ প্রতিরক্ষা এলাকায় ঢুকে পড়ায় তারা পাল্টা যুদ্ধবিমান উড়িয়েছে। রাশিয়ার প্রতিরক্ষামন্ত্রণালয় বলেছে, টহলের রুটে একটি পর্যায়ে কৌশলগত ক্ষেপণাস্ত্রবাহী বিমানকে সঙ্গ দিয়েছে বিদেশি যুদ্ধবিমান। মন্ত্রণালয় আরও জানায়, “রাশিয়ান এয়ারোস্পেস ফোর্সের টিইউ-৯৫ এমসি কৌশলগত ক্ষেপণাস্ত্রবাহী বিমান এবং চীনের পিপলস লিবারেশন আর্মির (পিএলএ) বিমানবাহিনীর কৌশলগত বোমারু বিমান এক্সআইএএন এইচ-৬কে জাপান সাগর এবং পূর্ব চীন সাগরের ওপর দিয়ে টহল দিয়েছে।” রাশিয়া ও চীনের যুদ্ধবিমান আন্তর্জাতিক আইনের ধারা মেনে টহল দিয়েছে এবং কোনও দেশের আকাশসীমা লঙ্ঘন করা হয়নি বলে দাবি করেছে রুশ প্রতিরক্ষামন্ত্রণালয়। তাছাড়া, এই প্রথম রাশিয়া ও চীনের সামরিক বিমান যৌথ টহলের অংশ হিসেবে একে অপরের দেশের বিমানঘাঁটিতে অবতরণ করেছে বলেও জানিয়েছে মন্ত্রণালয়। টুপোলেভ টিইউ-৯৫ বোমারু বিমানকে নেটো দেশগুলোতে ‘বিয়ার’ নামে পরিচিত। এই বিমান এবং টিইউ-১৬০ রাশিয়ার পারমাণবিক বাহিনীর দূরপাল্লার বিমান হামলার মেরুদÐ। স্নায়ুযুদ্ধের সময় যুক্তরাষ্ট্রে পারমাণবিক বোমা ফেলার জন্য এই বিমান নকশা করা হয়েছিল।