এম কফিল উদ্দিনের নামে সড়ক নামকরণের দাবি

5

গত ১৯ সেপ্টেম্বর শনিবার বিকালে সিটি মেয়র বীর মুক্তিযোদ্ধা এম. রেজাউল করিম চৌধুরীকে মহান মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক, সাবেক সংসদ সদস্য, বীর মুক্তিযোদ্ধা এম কফিল উদ্দিনের নামে বাকলিয়া এক্সেস রোডের নামকরণের দাবিতে বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদ চট্টগ্রাম মহানগর ইউনিট কমান্ড স্মারকলিপি প্রদান করেন। এ সময় মেয়র বলেন, মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বাস্তবায়নের বাতিঘর ছিলেন এম. কফিল উদ্দিন। মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের ঐক্যকে আরো দৃঢ়করতে এবং নতুন প্রজন্মের কাছে তুলে ধরতে হবে। তিনি একজন নির্লোভ রাজনৈতিক ও সমাজকর্মী ছিলেন। মুক্তিযুদ্ধের নীতি আদর্শের প্রশ্নে তিনি ছিলেন আপোষহীন। সিটি মেয়র আরো বলেন, চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের উদ্যোগে একটি কমিটি গঠন করে চট্টগ্রামে মহান মুক্তিযুদ্ধে অবদানকারী বিশিষ্ট বীর মুক্তিযোদ্ধাদের নামে পর্যাক্রেমে সড়কের নামকরণ ও স্মৃতিস্তম্ভ নির্মাণ করা হবে। এসময় বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদ চট্টগ্রাম মহানগর ইউনিট কমান্ডার মোজাফ্ফর আহমদ বলেন, এম. কফিল উদ্দিন আজীবন গণমানুষের জন্য কাজ করে গেছেন। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৬দফা কর্মসূচি প্রচারে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেন। মহান মুক্তিযুদ্ধকালীন তিনি ভারতের উদয়পুর সূর্যসেন ইয়ুথ ক্যাম্প পরিচালনার দায়িত্বে ছিলেন। বঙ্গবন্ধু এম. কফিল উদ্দিনের ভ‚মিকায় সন্তুষ্ট হয়ে ১৯৭৩ সালের নির্বাচনে মনোনয়ন প্রদান করলে তিনি বিপুল ভোটে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছিলেন। তিনি আজীবন মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বাস্তবায়নে কাজ করে গেছেন। স্মারকলিপি প্রদানকালে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদ চট্টগ্রাম মহানগর ইউনিট কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা মোজাফ্ফর আহমদ, ডেপুটি কমান্ডার মোহাম্মদ শহীদুল হক চৌধুরী ছৈয়দ, সহকারী কমান্ডার সাধন চন্দ্র বিশ্বাস, মো. খোরশেদ আলম যুদ্ধাহত, এফ.এফ আকবর খান, বীর মুক্তিযোদ্ধা কায়কোবাদ, মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সন্তান কমান্ড কেন্দ্রীয় কমিটির সদস মোহাম্মদ সরওয়ার আলম চৌধুরী মনি, চট্টগ্রাম মহানগর আহবায়ক সাহেদ মুরাদ সাকু, ড. মোহাম্মদ ওমর ফারুক রাসেল, আবু সাঈদ মাহমুদ রনী, মেজবাহ উদ্দিন আজাদ সহ বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদ চট্টগ্রাম মহানগর অধীন সকল থানা কমান্ডার ও ডেপুটি কমান্ডারগণ।