এডিএম উত্তর আদালতে বিচারক নেই ১৫ দিন

9

নিজস্ব প্রতিবেদক

চট্টগ্রামের এডিএম (উত্তর) আদালতে দীর্ঘদিন ধরে বিচার কাজে সংকট চলছে। মানবাধিকার সংগঠন বাংলাদেশ হিউম্যান রাইটস্ ফাউন্ডেশন-বিএইচআরএফ’র এক তথ্যানুসন্ধান রিপোর্টে এ তথ্য জানা গেছে। বিএইচআরএফ’র পক্ষে বলা হয়েছে, এডিএম (উত্তর) আদালতে দীর্ঘদিন ধরে বিচার কাজে সংকট চলছে। সপ্তাহে ৩ কার্যদিবস এ আদালত বসার শিডিউল থাকলেও প্রায় ১৫ দিন ধরে অতিরিক্ত জেলা হাকিম মাসুদ কামালের আদালত অনুপস্থিত থাকায় এ আদালতের বিচারকাজ স্থবির হয়ে পড়েছে। অনেক জনগুরুত্বপূর্ণ মামলার শুনানি করতে না পারায় জনস্বার্থ ও নাগরিক অধিকার মারাত্মকভাবে ক্ষুন্ন হচ্ছে।
এ ব্যাপারে বিএইচআরএফ’র মহাসচিব এডভোকেট জিয়া হাবীব আহ্সান, মানবাধিকার আইনবিদ এডভোকেট সুনীল কুমার সরকার, এডভোকেট এএইচএম জসীম উদ্দিন, এডভোকেট সৈয়দ মোহাম্মদ হারুন, এডভোকেট মো. সাইফুদ্দিন খালেদ, এডভোকেট মো. হাসান আলী, এডভোকেট মো. বদরুল হাসান, এডভোকেট খুশনুদ রাইসা ঊশিকা, এডভোকেট জিয়াউদ্দিন আরমান প্রমুখ এক যৌথ বিবৃতিতে এডিএম আদালতে বিচারক সংকটে উদ্বেগ প্রকাশ করেন।
তারা বলেন, এ সংকটে দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে বিচারপ্রার্থীদের। বিচার পাওয়া মানুষের সাংবিধানিক অধিকার। অবিলম্বে এ সংকট নিরসনে জেলা প্রশাসক ও বিভাগীয় কমিশনার মহোদয়ের হস্তক্ষেপ কামনা করছি।
উল্লেখ্য এডিএম কোর্টে সিআরপিসি’র ৯৮/১০০/১৪৫/ ১৪৭/১০৭/১১৭(সি) ধারার বিধান মতে ভিকটিম উদ্ধার, জমি-জমার বিরোধের কারণে রক্তপাত, শান্তি-শৃংখলা ভঙ্গসহ গুরুত্বপূর্ণ মামলাগুলো দায়ের, শুনানি ও বিচার হয়। কয়েক বছর আগে মহানগর ও জেলার মামলার আধিক্য ও সংখ্যার কারণে একটি আদালতে সংকুলান না হওয়ায় ৩টি এডিএম কোর্ট সৃজন করা হয়। যথা এডিএম উত্তর, দক্ষিণ ও মহানগর। অন্যান্য আদালত নিয়মিত বসলেও উত্তর আদালত প্রশাসনিক কাজে ব্যস্ত থাকায় তিনি সপ্তাহে ৩ দিন বসেন মাত্র। কিন্তু গত ১৫ দিন আদালত একেবারই বসছেন না। এতে বিচারপ্রার্থীদের ভোগান্তি চরমে উঠেছে আর মামলাবাজদের পোয়াবারো হচ্ছে। এডিএম উত্তর আদালতের অধিক্ষেত্রভুক্ত থানাগুলো হচ্ছে- মিরাসরাই, সীতাকুন্ড, জোরারগঞ্জ, রাউজান, রাঙ্গুনিয়া, ভুজপুর।
ভারপ্রাপ্ত আদালতে শুধুমাত্র চেম্বারে মামলা দায়ের হলেও এজলাসে শুনানির সুযোগ নেই এবং জরুরি নথি উত্থাপনেরও সুযোগ না থাকায় বিচার প্রার্থীরা ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছেন।