উত্তম কুমার তালুকদারের একক চিত্র প্রদর্শনীর উদ্বোধন

24

পূর্বদেশ অনলাইন
গত ২৭ অক্টোবর বিকেল পাঁচটায় চট্টগ্রাম শিল্পকলা একাডেমীর জয়নুল গ্যালারিতে উদ্বোধন হলো চিত্রশিল্পী উত্তম কুমার তালুকদারের ১১তম একক চিত্র প্রদর্শনী। কানায় কানায় পূর্ণ হলঘরে একঝাঁক চারুশিল্পী ও গুণীজনের আনন্দোচ্ছল উপস্থিতি প্রমাণ করে এই শিল্পের প্রতি তাঁদের ভালোবাসা। অনুষ্ঠানে অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন চারুশিল্পের আলোকবর্তিকা শিক্ষক, শিল্পসাহিত্য অনুরাগী ও পৃষ্ঠপোষক ভাস্কর অলক রায়, চিত্রশিল্পী ও শিক্ষক খাজা কাইয়ুম, শিল্পবোদ্ধা ও পৃষ্ঠপোষক আলম খোরশেদ, চিত্রশিল্পী ও শিক্ষক সৌমেন দাশ, অধ্যাপক সমীর তালুকদার এবং উত্তম তালুকদারের বড়বোন স্বপ্না তালুকদার। জনাব আলম খোরশেদের সুললিত কণ্ঠে বক্তব্যে উঠে এসেছে কিছু অভিমান। চট্টগ্রামে চিত্রশিল্পের বাজার নেই, নেই পৃষ্ঠপোষকতা। অথচ বানিজ্যিক রাজধানী খ্যাত এই চট্টগ্রামেই রয়েছে বিভিন্ন তারকাখচিত হোটেল ও সুপ্রতিষ্ঠিত ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠান ও স্বনামধন্য সংগঠন । জনাব আলম খোরশেদ দাবি জানান, চট্টগ্রামের শিল্পীদের আঁকা চিত্রকর্ম দিয়ে তাঁদের প্রতিষ্ঠান সুসজ্জিত করার। শিল্পী সৌমেন দাশ তাঁর প্রিয় ছাত্র উত্তমকে আশীর্বাদ জানিয়ে বলেন,শত প্রতিকূলতার মধ্যেও উত্তম যে নিজেকে উত্তম প্রমাণ করেছে তাতেই আমি গৌরব বোধ করি। প্রিয় ছাত্রের ১১তম একক চিত্র প্রদর্শনী উদ্বোধন করতে এসে আবেগাপ্লুত শিক্ষক খাজা কাইয়ুম বলেন, ‘দীর্ঘ শিক্ষক জীবনে এমন একাগ্র ছাত্র পেয়ে আমি নিজেই অনুপ্রেরণা পাই শিল্পকর্মে নিবিষ্ট থাকার।’ অধ্যাপক সমীর তালুকদার ও স্বপ্না তালুকদার জানান, শত বাধাবিঘ্ন উপেক্ষা করে উত্তমের এগিয়ে যাওয়ার গল্প। গত ১ অক্টোবর তাঁর মায়ের মৃত্যু কিংবা ডায়াবেটিস আক্রান্ত এই শিল্পীর ন’টা পাঁচটার অফিস সেরে রাত জেগে ছবি আঁকার গল্প উপস্থিত দর্শক শ্রোতা ও চিত্রশিল্পীদের মোহিত করে। উপভোগ্য আলোচনা সভার প্রাণবন্ত সঞ্চালনা করেন চিত্রশিল্পী নূরী আকবর চৌধুরী। প্রদর্শনী উপলক্ষে একটি দৃষ্টিনন্দন স্মারক গ্রন্থ প্রকাশিত হয় চিত্রশিল্পী অরুণ শীলের সুদক্ষ সম্পাদনায়। উদ্বোধনের পরে সকল দর্শক ও অতিথিবৃন্দ শিল্পীর শিল্পকর্ম ঘুরে ঘুরে দেখেন। এই নান্দনিক আয়োজন আগামী ৩১ অক্টোবর পর্যন্ত বিকাল পাঁচটা থেকে রাত নয়টা পর্যন্ত সকল দর্শনার্থীদের জন্য উন্মুক্ত থাকবে।