ইমরানের অধীনে এজেন্সিগুলো ভোট চুরিতে জড়িত : মরিয়ম নওয়াজ

7

পাকিস্তানে পাঞ্জাবের দাস্কা উপনির্বাচনে অনিয়ম নিয়ে বিতর্ক চলছে। এরইমধ্যে পাকিস্তান মুসলিম লীগ-নওয়াজ (পিএমএল-এন)-এর ভাইস প্রেসিডেন্ট মরিয়ম নওয়াজ বুধবার ‘ভোট চোর’ ইমরান খানের অধীনে সরকারি সংস্থাগুলোকে অভিযুক্ত করেছেন। ডন-এর উদ্ধৃতি দিয়ে মরিয়ম বলেন, ভোট চোর ইমরান খানের অধীনে আসা এজেন্সিগুলো জালিয়াতিতে জড়িত ছিল। তিনি আরও বলেন, জালিয়াতির পরও যখন তারা জিততে পারছিল না, তখন তারা ২০ কর্মকর্তাকে অপহরণ করে। গত সপ্তাহে পাকিস্তানের নির্বাচন কমিশন (ইসিপি) এক বিবৃতিতে বলেছে, তারা সন্দেহ করছে যে ২০টি ভোট কেন্দ্রের ফলাফল মিথ্যা। দেশের জাতীয় সংসদের এনএ-৭৫ আসনের উপনির্বাচন দাস্কা নির্বাচনী এলাকার একটি ভোট কেন্দ্র সহিংসতায় বিপর্যস্ত হয়ে পড়ে। পিএমএল-এন নেতা দেশটির নির্বাচন সংস্থার প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন যাতে জালিয়াতির সাথে জড়িত কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হয়। গত সপ্তাহে মরিয়ম বলেছিলেন, এনএ-৭৫ (দাস্কা) আসনের উপনির্বাচনের ফলাফলের বৈধতা নিয়ে সন্দেহ করা ইসিপি ইমরান খানের নেতৃত্বাধীন সরকারের বিরুদ্ধে একটি ‘চার্জশিট’।
ইমরান খানের নেতৃত্বাধীন পাকিস্তান তেহরিক-ই-ইনসাফ যখন ঘোষণা করেছিল যে তারা নির্বাচনে জয়লাভ করেছে, তখন ইসিপি বলেছে যে তারা সন্দেহ করছে যে এনএ-৭৫ (দাস্কা) আসনের উপনির্বাচনে ২০টি ভোট কেন্দ্রের ফলাফল মিথ্যা হয়েছে। পাকিস্তানের বিরোধী দলগুলোর অভিযোগ, ২০১৮ সালে ভোট কারচুপির মাধ্যমে ইমরান খান জয়ী হয়ে সরকার গঠন করেছেন।