‘ইতিহাসের এক জঘন্যতম ঘটনা চট্টগ্রামের গণহত্যা’

10

মুক্তিযুদ্ধের বিজয়মেলা পরিষদ


১৯৮৮ সালের ২৪ জানুয়ারি চট্টগ্রাম গণহত্যা দিবসকে স্মরণ করে মুক্তিযুদ্ধের বিজয়মেলা পরিষদের পক্ষ থেকে শহীদদের স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে পুষ্পমাল্য অর্পণ, শহীদ হাসান মুরাদের কবর জিয়ারতসহ পরিবারের সদস্যদের সাথে সাক্ষাৎ করা হয়। গতকাল মঙ্গলবার আওয়ামী লীগ জাতীয় কমিটির সদস্য ও বিজয় মেলা পরিষদ চট্টগ্রামের মহাসচিব বীর মুক্তিযোদ্ধা মোহাম্মদ ইউনুছের নেতৃত্বে মুক্তিযোদ্ধা ও মুক্তিযোদ্ধার সন্তানরা কোর্ট বিল্ডিংস্থ শহীদ স্মৃতি স্থম্ভে ফুলেল শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করেন। পরে তারা নগরীর বান্ডেল রোসডস্থ শহীদ হাসান মুরাদের কবর জিয়ারত করেন ও শহীদের পরিবারের সদস্যদের খোঁজ খবর নেন ও স্মৃতিচারণ করেন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন বীর মুক্তিযোদ্ধা পান্টু লাল শাহা, মুক্তিযোদ্ধার সন্তান কাজী রাজেশ ইমরান, রকিবুল ইসলাম, এনায়েতুর রহমান, সুচিত্রা গুহ, মো. শাহাদাত প্রমুখ।

দেবাশীষ পাল দেবু


চট্টগ্রাম গণহত্যা দিবসে কোর্ট বিল্ডিং প্রাঙ্গণে শহীদ বেদিতে মহানগর যুবলীগ নেতা দেবাশীষ পাল দেবুর নেতৃত্বে পুষ্পমাল্য অর্পণ করা হয়। পরে আলোচনা সভায় তিনি বলেন, জননেত্রী শেখ হাসিনাকে হত্যার উদ্দেশ্যে তৎকালীন সিএমপি কমিশনার রকিবুল হুদার নির্দেশে পুলিশ গুলি চালিয়েছিল। সেদিন বীর জনতা জীবন দিয়ে জননেত্রীকে রক্ষা করেন।
সভায় উপস্থিত ছিলেন নগর যুবলীগ নেতা আনিফুর রহমান লিটু, সুফিউর রহমান টিপু, রায়হান নেওয়াজ সজীব, ইমতিয়াজ বাবলা, ফরহাদ আব্দুল্লাহ্, মো. ইসমাঈল, মারুফুল ইসলাম, সাজিবুল ইসলাম, মাকসুদুর রহমান, জুয়েল আকবর, সৈয়দ সুলতান, হারুনুর রশীদ, সৈয়দ হোসাইন, পলাশ চক্রবর্তী প্রমুখ। বিজ্ঞপ্তি