ইউরোপে রুশ গ্যাসপ্রবাহের এক-তৃতীয়াংশ বন্ধ করলো ইউক্রেন

8

 

ইউরোপে রাশিয়ার প্রাকৃতিক গ্যাসপ্রবাহের একাংশ বন্ধ করে দেওয়ার দাবি করেছে ইউক্রেন। মস্কোর বিরুদ্ধে গুরুত্বপূর্ণ একটি পাইপলাইন নেটওয়ার্ক থেকে সরবরাহ অন্যদিকে সরিয়ে নেওয়ার অভিযোগ তুলে এই পদক্ষেপ নিয়েছে কিয়েভ।
প্রায় আড়াই মাস ধরে চলমান যুদ্ধে এই প্রথম রুশ গ্যাসের প্রবাহ থামালো ইউক্রেন। মার্কিন সংবাদমাধ্যম সিএনএন এখবর জানিয়েছে।
জার্মানিসহ ইউরোপের অনেক দেশের জ্বালানির অন্যতম উৎস রাশিয়ার গ্যাস। গত ফেব্রুয়ারিতে রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের নির্দেশে ইউক্রেনে রুশ সেনাদের আক্রমণের পরও অব্যাহত ছিল ইউরোপে রুশ গ্যাসের প্রবাহ।
মঙ্গলবার রাতে ইউক্রেনের গ্যাস সঞ্চালন নিয়ন্ত্রণকারী প্রতিষ্ঠানের এক বিবৃতিতে বলা হয়, ‘দখলদার বাহিনীর হস্তক্ষেপের’ কারণে তারা একটি গুরুত্বপূর্ণ ট্রানজিট পয়েন্ট বন্ধ করে দেওয়ার সিদ্ধান্তনিয়েছে। সোখরানিভকা ট্রানজিট পয়েন্ট থেকে দৈনিক ৩২.৬ মিলিয়ন কিউবিক মিটার গ্যাস বিতরণ করা হয়। যা ইউক্রেনের ভেতর দিয়ে ইউরোপে প্রবাহিত হওয়া রুশ গ্যাসের এক-তৃতীয়াংশ বলে জানায় নিয়ন্ত্রণকারী প্রতিষ্ঠানটি।
ওই বিবৃতিতে বলা হয়, অনুমতি ছাড়া গ্যাস সরানোসহ রুশ হস্তক্ষেপের কারণে গ্যাস পরিবহন ব্যবস্থার স্থিতিশীলতা ও নিরাপত্তা হুমকির মুখে পড়েছে।
ইউক্রেন জানিয়েছে, ওই পয়েন্ট দিয়ে প্রবাহিত গ্যাস সুদজা ট্রানজিট পয়েন্টে সরিয়ে নেওয়া হতে পারে। ২০২০ সালে মেরামত কাজ চালানোর সময়েও একই পদক্ষেপ নেওয়া হয়।