ইউপি চেয়ারম্যান ও সচিবকে তলব রাঙ্গুনিয়ায় জাতীয় পতাকার অবমাননা

37

রাঙ্গুনিয়ার পোমরা ইউনিয়ন পরিষদে জাতীয় পতাকাকে অবমাননা করার ঘটনায় ইউপি চেয়ারম্যান মুক্তিযোদ্ধা কুতুব উদ্দিন চৌধুরী ও সচিব এনামুল হককে তলব করেছেন ইউএনও মো. মাসুদুর রহমান। চেয়ারম্যান ও সচিব এ সময় জাতীয় পতাকাকে অবমাননাকর অবস্থায় রাখার সত্যতা নিশ্চিত করে দোষ স্বীকার করেন এবং ভবিষ্যতে এধরণের হবেনা বলে নিশ্চয়তা দেন। পোমরা ইউনিয়ন পরিষদের বারান্দায় দীর্ঘদিন ধরে একটি বাঁশের আগায় জাতীয় পতাকা বেঁেধ রেখে কাঁৎ করে ঝুলিয়ে রাখার ছবি বুধবার রাতে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়লে দৃষ্টিগোচর হয় চট্টগ্রামের জেলা প্রশাসক ইলিয়াস হোসেনের। দীর্ঘদিন ধরে ইউনিয়ন পরিষদের বারান্দায় জাতীয় পতাকাকে অবহেলিত অবস্থায় রেখে একজন মুক্তিযোদ্ধা চেয়ারম্যান কিভাবে পরিষদ করেছেন তা নিয়েও সমালোচনা চলছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে। জেলা প্রশাসক ইলিয়াছ হোসেন বুধবার রাতেই রাঙ্গুনিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. মাসুদুর রহমানকে জাতীয় পতাকা অবমাননার ঘটনা খতিয়ে দেখে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে নির্দেশনা দেন। এর প্রেক্ষিতে গত ১৫ আগস্ট দুপুরে ইউএনও অফিসে তলব করা হয় চেয়ারম্যান কুতুব উদ্দিন চৌধুরী ও সচিব এনামুল হককে। এ সময় জাতীয় পতাকার অবমাননা কেন করা হলো ইউএনও’র এমন প্রশ্নে ইউপি চেয়ারম্যান কুতুব উদ্দিন বলেন, ভুলক্রমে একদিন এমন ঘটনা ঘটেছে। এ সময় স্থানীয় কয়েকজন সংবাদকর্মী তাদের কাছে ১৭ দিনের স্থিরচিত্র আছে জানালে চেয়ারম্যান সুর পাল্টিয়ে পরিষদে ফ্ল্যাগ স্ট্যান্ড নেই তাই ভুলক্রমে এমন ঘটনা ঘটেছে বলে স্বীকার করেন। ভবিষ্যতে আর এধরণের ঘটনার পুনরাবৃত্তি হবেনা বলে তিনি প্রতিশ্রুতি দেন ইউএনওকে। ইউএনও মাসুদুর রহমান জানান, জাতীয় পতাকার অবমাননার সত্যতা নিশ্চিত করে ভুল স্বীকার করায় চেয়ারম্যান ও সচিবকে সতর্ক করা হয়েছে। অবমাননার বিষয়ে জেলা প্রশাসককে জানানো হয়েছে। তাদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিবে মূলত জেলা প্রশাসন।