ইংল্যান্ডের কাছে পাত্তাই পেল না বাংলাদেশ

6

পূর্বদেশ ক্রীড়া ডেস্ক

ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ইতিহাসে প্রথমবার টি-টোয়েন্টি খেলতে নেমে পাত্তাই পেল না বাংলাদেশ। আবুধাবির শেখ জায়েদ স্টেডিয়ামে আগে ব্যাট করতে নেমে ব্যাটারদের ব্যর্থতায় মাত্র ১২৪ রান সংগ্রহ করতে পারে মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের দল। জবাবে ৮ উইকেটের হার নিয়ে মাঠ ছাড়তে হয় বাংলাদেশকে।
১২৫ রানের লক্ষ্য তাড়া করতে নামা ইংল্যান্ডের দুই ওপেনার জস বাটলার ও জেসন মিলে যোগ করেন ৩৯ রান। ইনিংসের পঞ্চম ওভারে নাসুম আহমেদের বলে তুলে মারতে গিয়ে সাজঘরে ফিরতে হয়েছে বাটলারকে। এক্সট্রা কভারে দাঁড়িয়ে থাকা নাইম শেখ ক্যাচটি লুফে নিলে ১৮ বলে ১৮ রান করে প্যাভিলিয়নের পথে হাঁটেন ডানহাতি এই ব্যাটার।
দ্বিতীয় উইকেট জুটিতে ডেভিড মালান ও রয় মিলে যোগ করেন ৭৩ রান। হাফ সেঞ্চুরি তুলে নেয়ার পর শরিফুলের বলে স্কুপ আপ করতে গিয়ে ক্যাচ আউট হয়েছেন ৩৮ বলে ৬১ রান করা রয়।এরপর ইংল্যান্ডকে আর কোনো উইকেট হারাতে দেননি মালান ও জনি বেয়ারস্টো। ৩৫ বল বাকি থাকতে ইংল্যান্ডের ৮ উইকেটের জয় নিশ্চিত করেন তারা দুজন। শেষ পর্যন্ত মালান ২৫ বলে ২৮ রান করে এবং বেয়ারস্টো ৮ রান করে অপরাজিত ছিলেন। বাংলাদেশের হয়ে নাসুম ও শরিফুল একটি করে উইকেট নিয়েছেন।
এর আগে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে প্রথমবার টি-টোয়েন্টি খেলতে নেমে টস জিতে আগে ব্যাটিং নিয়ে শুরুটা ভাল করতে পারেনি বাংলাদেশ। ইনিংসের তৃতীয় ওভারে দ্বিতীয় বলে সাজঘরে ফেরেন লিটন দাস। স্পিনার মঈন আলির বলে তুলে মারতে গিয়ে ডিপ ব্যাকওয়ার্ড স্কয়ার লেগে দাঁড়িয়ে থাকা লিয়াম লিভিংস্টোনের হাতে ক্যাচ তুলে দেন ডানহাতি এই ওপেনার।
৮ বলে ৯ রান করে সাজঘরে ফেরেন লিটন। ওভারের পরের বলে তুলে মারতে গিয়ে ক্রিস ওকসের হাতে ক্যাচ তুলে দিয়ে আউট হয়েছেন ৭ বলে ৫ রান করা নাইম শেখ। থিতু হতে পারেননি সাকিব আল হাসানও। ওকসের বলে তুলে মারতে গিয়ে শর্ট ফাইন লেগে ক্যাচ তুলে দেন তিনি। তাতে পাওয়ার প্লেতে ৩ উইকেট হারিয়ে মাত্র ২৭ রান তোলে বাংলাদেশ।
পাওয়ার প্লে পর প্রতিরোধ গড়ে তোলার চেষ্টায় মুশফিকুর রহিম এবং মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ মিলে যোগ করেন ৩৭ রান। কিন্তু ১১.৪ ওভারে লিভিংস্টোনের বলে রিভার্স সুইপ করতে গিয়ে লেগ বিফোর উইকেটে আউট হয়েছেন মুশফিক। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে হাফ সেঞ্চুরি করা ডানহাতি এই ব্যাটার সাজঘরে ফেরেন ৩০ বলে ২৯ রান।
ছয়ে নেমে থিতু হতে পারেননি আফিফ হোসেন। স্পিনার লিভিংস্টোনের বলে রান আউট হয়েছেন ৫ রান করা আফিফ। মূলত মাহমুদউল্লাহর সঙ্গে ভুল বোঝাবুঝিতে রান আউট হয়েছেন বাঁহাতি এই ব্যাটার। লিভিংস্টোনের বলে তুলে মারতে গিয়ে আউট হয়েছেন ১৯ রান মাহমুদউল্লাহ।
টাইমাল মিলসের বলে শর্ট ফাইন লেগ দিয়ে স্কুপ করতে গিয়ে ওকসের হাতে ক্যাচ দিয়ে আউট হয়েছেন ১০ বলে ১১ রান করা শেখ মেহেদি হাসান। শেষ দিকে ৯ বলে অপরাজিত ১৯ রানের ক্যামিও ইনিংস খেলেছেন নাসুম। ইংল্যান্ডের হয়ে মিলস তিনটি, মঈন ও লিভিংস্টোন নিয়েছেন দুটি করে উইকেট।
সংক্ষিপ্ত স্কোর:
বাংলাদেশ- ১২৪/৯ (ওভার ২০) (মুশফিক ২৯, মাহমুদউল্লাহ ১৯, নাসুম ১৯*, সোহান ১৬; মিলস ৩/২৭, মঈন ২/১৮, লিভিংস্টোন ২/১৫)
ইংল্যান্ড- ১২৬/২ (ওভার ১৪.১) (বাটলার ১৮, রয় ৬১, নাসুম ১/২৬, শরিফুল ১/২৬)