আহমদ শরীফ জন্মশতবার্ষিকী সাহিত্য সন্ধ্যা

14

 

চট্টগ্রাম সাহিত্য পাঠচক্রের উদ্যোগে বাংলা সাহিত্য ও সাংস্কৃতিক পরিমন্ডলের অন্যতম প্রতিভু, খ্যাতনামা ভাষাবিদ ড. আহমদ শরীফের জন্ম শতবার্ষিকী স্মরণে ‘মা জন্ম দেয়, মাটি লালন করে তাই দেশের মাটিকে মাটির মতই ভালোবাসতে হয়’ শীর্ষক এক সাহিত্য সন্ধ্যা গত ১৫ ফেব্রূয়ারী সোমবার রাতে ভার্চ্যুয়ালি অনুষ্ঠিত হয়। এতে আলোচনা, গান ও আবৃত্তি অংশগ্রহণ করেন সংঠনের সভাপতি বাবুল কান্তি দাশ, সহ সভাপতি বিজয় শংকর চৌধুরী, সাংস্কৃতিক সংগঠক, সুজিত কুমার দাশ, মুক্তিযোদ্ধো এস. এম. লিয়াকত হোসেন, সঙ্গীতশিল্পী লুপর্ণা মুৎসুদ্দী, কবি আসিফ ইকবাল, হৃদয় দে, সাফাত বিন সানাউল্লাহ, সুমন চৌধুরী, প্রীতম আচার্য, শিহাব রহমান প্রমুখ। সভায় বক্তারা বলেন, মধ্যযুগের বাংলা সাহিত্য নিয়ে ড. আহমদ শরীফের গবেষণা এবং আবিস্কার উভয় বাংলায় প্রনিধাণযোগ্য। উনি আবদুল করিম সাহিত্য বিশারদের যোগ্য উত্তরসুরি হিসেবে পুঁথিসাহিত্যের টিকা-ভাষ্য রচনা করেছেন। যার মধ্য দিয়ে বাঙালি মুসলমান সে সময়ের সমাজের সমাজ বাস্তবতা, সমাজতাত্তি¡ক দৃষ্টিকোণ থেকে তুলে ধরেছেন। তিনি ছিলেন মানবতাবাদী, যুক্তিবাদী এবং প্রথার বাইরে একজন অধ্যাপক ও মনীষী।আধ্যাপক আহমদ শরীফ বাংলাদেশের স্বাধীনতা আন্দোলনে সক্রিয় বুদ্ধিভিত্তিক ভূমিকা রেখেছেন এবং স্বাধীনতা পরবর্তী বাংলাদেশের নিজস্ব মৌলিক চিন্তাকে এগিয়ে নিয়ে গেছেন। বাংলাদেশের তরুণ সমাজের মধ্যে বুদ্ধিভিত্তিক বিকাশের জন্যে নিরলস লিখে গেছেন। অধ্যাপক আহমদ শরীফ এর পান্ডিত্য এবং মধ্য যুগ ও বাংলা সাহিত্য বিষয়ে তাঁর মতামত বাংলা ভাষাভাষী জনগোষ্ঠীর জন্য অতুলনীয় উৎস হিসেবে ঠিকে থাকবে।