আসামিদের জেরা সম্পন্ন, যুক্তিতর্ক জানুয়ারিতে

9

কক্সবাজার প্রতিনিধি

সেনাবাহিনীর অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা মোহাম্মদ রাশেদ খান হত্যা মামলায় অভিযুক্ত ১৫ আসামির আদালতে কার্যবিধি ৩৪২ ধারায় লিখিত বক্তব্য প্রদান শেষ হয়েছে।
গতকাল মঙ্গলবার বরখাস্ত এসআই নন্দ দুলালের বক্তব্য প্রদানের মধ্য দিয়ে সকল আসামির আদালতে বক্তব্য প্রদান সম্পন্ন হয়। পরে আদালত এই মামলার যুক্তিতর্কের জন্য আগামী ৯, ১০, ১১ এবং ১২ জানুয়ারি পরবর্তী তারিখ ধার্য্য করেন। সকাল সাড়ে ১১টার দিকে কক্সবাজার জেলা ও দায়রা জজ মোহাম্মদ ইসমাইলের আদালতে নন্দ দুলাল বক্তব্য প্রদান শুরু হয়। গত সোমবার এই মামলায় বরখাস্ত ওসি প্রদীপসহ ১৫ আসামির মধ্যে ১৪ জন তাদের লিখিত বক্তব্য আদালতে উপস্থাপন করেছেন। বিচারক আসামিদের প্রত্যেককে নিজেদের অপরাধের বিষয়ে সরাসরি জানতে চেয়েছেন। লিখিত বক্তব্যের পাশাপাশি ওসি প্রদীপসহ আসামিরা মৌখিকভাবে বিচারকের প্রশ্নের জবাব দিয়েছেন।
রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী পিপি এডভোকেট ফরিদুল আলম জানান, ৮৩ জন সাক্ষীর মধ্যে ৬৫ জন সাক্ষ্য দিয়েছেন, জেরা শেষ হয়েছে। সোমবার কার্যবিধি ৩৪২ ধারায় ১৪ জন আসামি আদালতে তাদের লিখিত বক্তব্য দিয়েছেন। মঙ্গলবার অপর আসামি নন্দ দুলাল তার লিখিত বক্তব্য উপস্থাপন করেছেন।
তিনি জানান, পারে আসামিদের দেয়া বক্তব্য নিয়ে আদালত পর্যালোচনাও করেছেন। আদালতের বিচারক সকল আসামিদের পৃথকভাবে তাদের বক্তব্য নিয়ে সরাসরি সওয়াল-জবাব করেন। আগামী ধার্য্য তারিখে এই মামলার যুক্তিতর্ক শুরু হবে।
গত ২৩ আগস্ট থেকে কক্সবাজার জেলা ও দায়রা জজ মোহাম্মদ ইসমালের আদালতে সাক্ষ্যগ্রহণ এবং জেরা শুরু হয়ে ১ ডিসেম্বর শেষ হয়। যেখানে ৬৫ জন সাক্ষী সাক্ষ্য দিয়েছেন।
উল্লেখ্য, গত বছর ৩১ জুলাই রাতে কক্সবাজার-টেকনাফ মেরিন ড্রাইভ সড়কের টেকনাফ উপজেলার বাহারছড়া ইউনিয়নের শামলাপুর চেকপোস্টে পুলিশের গুলিতে নিহত হন সেনাবাহিনীর অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা মোহাম্মদ রাশেদ খান।