‘আমার আছে মুক্ত আকাশ’ সুপলাল বড়ুয়ার শিশু-কিশোর অনবদ্য গ্রন্থ

17

 

বাংলাভাষা ও সাহিত্যের উৎকর্ষ সাধনে শিশুতোষগ্রন্থ বিশাল একটা অধ্যায় সমুজ্জ্বল করে রেখেছে। সম্প্রতি ফেব্রূয়ারি ২০২১ প্রকাশিত বিশিষ্ট সাংবাদিক ও ছড়াকার সুপলাল বড়ুয়ার ‘আমার আছে মুক্ত আকাশ’ গ্রন্থটি বাংলাভাষা ও সাহিত্যের শিশুতোষ গ্রন্থের এক অবিস্মরণীয় সংযোজন। এই বইটিতে ঊনিশটি গুরুত্বপূর্ণ লেখা স্থান পেয়েছে। ইতিপূর্বে তাঁর ‘শঙ্খ নদীর ঢেউ’, ‘যখন বড় হবো’ এই দু’টি গ্রন্থও যথাক্রমে ফেব্রূয়ারি ২০০০ ও ফেব্রূয়ারি ২০০৩ খ্রিস্টাব্দে প্রকাশিত হয়েছে। তাঁর অনেক কবিতা, ছড়া, গল্প, প্রবন্ধ বিভিন্ন জাতীয় পত্রিকা, সাময়িকী ও মেগাজিনে প্রকাশিত হয়েছে।
‘আমার আছে মুক্ত আকাশ’ গ্রন্থে তিনি বাংলাদেশের ভাষা সংগ্রাম, স্বাধীনতা, অনিন্দ্য সুন্দর প্রকৃতি, শৈশব স্মৃতি, সম্প্রীতি, পারিবারিক বন্ধন, মুক্তি যুদ্ধের অকুতোভয় বীরের সম্মান, অপূর্ব সুন্দর বাংলার আকাশ, শত দুর্বিপাকের মধ্যেও মানুষের অফুরন্ত স্বপ্ন-কল্পনা, জ্ঞান অর্জনে স্কুলের অপরিহার্যতা, আলোর পথে সত্যের পথে চলার অদম্য লড়াই, মন্দকে ধ্বংস করে শ্বেতকপোতের অনন্ত আকাশে উড়ার মতো স্বাধীনভাবে চলার অভিলাষ, নৈতিক মূল্যবোধের শিক্ষা ও সৎচরিত্র গঠন, ভিন্নপথে চলা দুইভাইয়ের মধ্যে মমতার ক্ষমতা, অদ্বিতীয়-অতুলনীয় বাবার অবদান, বাংলা প্রকৃতির ষড়ঋতুর বৈচিত্র্যময় পালাবদলও বৈশিষ্ট্য, সর্বোপরি মুক্ত আকাশের বিশালতায় ভরপুর আরো বিভিন্ন প্রেক্ষাপটে অত্যন্ত সাবলীলভাবে লেখা ‘আমার আছে মুক্ত আকাশ’ বইটি ছোট্ট সোনামনি শিশুরা অত্যন্ত আনন্দ মনে পড়ে উপভোগ করতে পারবে। পাশাপাশি কবি, সাহিত্যিক, ছড়াকার, প্রাবন্ধিক, সমালোচকসহ সকলপাঠকের আপনচিত্ত জগতও মনোজগতকে উজ্জীবিত, উদীপ্ত করবে।
এই গ্রন্থটিতে প্রকাশিত ১৯টি কবিতার প্রতিটিতে সংক্ষিপ্ত পরিসরে বিশালতায় ভরপুর বিষয়বস্তুকে তুলে ধরা হয়েছে। মুক্ত আকাশের যে অফুরন্ত বৈচিত্র্য ও ভান্ডারতা ‘আমার আছে মুক্ত আকাশ’ গ্রন্থে সমুজ্জ্বল হয়ে আছে। তাই লেখক- সাংবাদিক সুপলাল বড়য়ার লেখনিতে ‘আমার আছে মুক্ত আকাশ’ গ্রন্থটি বাংলা ভাষা ও সাহিত্যের একটি অনবদ্য শিশুতোষ গ্রন্থ। আগামীতে অরো সমৃদ্ধ গ্রন্থের প্রত্যাশায় রইলাম।