আধ্যাত্মিক ধ্যান সাধনায় গোবিন্দ ঠাকুর আলোকিত সমাজ বিনির্মাণ করে গেছেন

45

আধ্যাত্মিক সাধক গুরু গোবিন্দ ঠাকুর ও প্রয়াত উপ-সংঘরাজ গুণালংকার মহাস্থবির স্মরণ সভায় বক্তারা বলেছেন, আধ্যাতিœক ধ্যান সাধনায় গোবিন্দ ঠাকুর মনুষ্যত¦ বিকাশের মাধ্যমে আলোকিত সমাজ বিনির্মাণ করে গেছেন। বক্তারা, এই উপমহাদেশে বৌদ্ধ ধর্ম প্রচার ও বুদ্ধের অহিংসা, সাম্য, মৈত্রী নীতিকে সমুন্নত রেখে মানবতার কল্যাণে এই দুই মহাপুরুষ যে অবদান রেখেছেন তাহা স্মরণ করে বক্তারা আরো বলেন- দুঃখ মুক্তির অন্বষণে তাঁরা মানুষকে সত্যের পথ দেখিয়েছেন। বক্তারা গত মঙ্গলবার, হাটহাজারী উপজেলাধীন ঐতিহ্যবাহী জোবরা গ্রামে গোবিন্দ ঠাকুর স্মৃতি মন্দির প্রাঙ্গনে অনুষ্ঠিত এক ধর্ম সভায় উপরোক্ত অভিমত ব্যাক্ত করেন। এই উপলক্ষে আয়োজিত বাবু কল্যান বড়–য়ার সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানটি উদ্ভোধন করেন অধ্যক্ষ শীলরক্ষিত মহাথের। উক্ত ধর্মসভায় সভাপতিত্ব করেন চট্টগ্রাম বৌদ্ধ বিহারের অধ্যক্ষ উপ- সংঘরাজ ডক্টর জ্ঞানশ্রী মহাথের। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উপ-সংঘরাজ স্মৃতিধর শীলানন্দ মহাথের। প্রধান ধর্মদেশক ও প্রধান বক্তা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন যথাক্রমে-বিচিত্র ধর্মকথিক উপ-সংঘরাজ ধর্মপ্রিয় মহাথের,বাংলাদেশ সংঘরাজ ভিক্ষু মহাসভার মহা সচিব সদ্ধর্মকোবিদ এস. লোকজিৎ থের, বিশেষ সদ্ধর্মদেশক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সংঘরাজ ভিক্ষু মহামন্ডলের সভাপতি কর্মদূত জিনালংকার মহাথের, মূখ্য আলোচক ছিলেন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাচ্য ভাষা বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ডক্টর জ্ঞানরত্ন মহাথের।
এতে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন অধ্যক্ষ প্রিয়ানন্দ মহাথের, অধ্যক্ষ শাসনানন্দ মহাথের, অধ্যক্ষ মৈত্রীপ্রিয় মহাথের, সাংবাদিক ও সাহিত্যিক সমীরণ বড়ুয়া। এতে স্বাগত বক্তব্য রাখেন অনুষ্ঠান উদ্যাপন পরিষদেও মহা সচিব বাবু সুভাষ চন্দ্র বড়ুয়া। এতে পঞ্চশীল প্রার্থনা করেন সুগতানন্দ বড়ুয়া। এতে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন এই উদযাপন পরিষদের আহবায়ক বাবু জগদীশ চন্দ্র বড়ুয়া। বাবু মদন মোহন বড়ুয়া, সংঘরাজ ভিক্ষু মহামন্ডলের সাধারণ সম্পাদক, বিপুলসেন থের, ভদন্ত আর্যশ্রী মহাথের, ভদন্ত বিনয়পাল মহাথের, ভদন্ত দীপানন্দ মহাথের, ভদন্ত প্রিয়ানন্দ মহাথের, ভদন্ত ড. বুদ্ধপাল থের, ভদন্ত লোকাবংশ থের প্রমুখ। খবর বিজ্ঞপ্তির