আধুনিক একটি ট্রেন সংযোজনের ঘোষণা

37

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে (চবি) রুটে নতুন একটি আধুনিক ট্রেন সংযোজনের ঘোষণা দিয়েছেন রেলপথ মন্ত্রী নূরুল ইসলাম সুজন এমপি। গতকাল বুধবার বিকালে বিশ্ববিদ্যালয়ের শাটল ট্রেন পরিদর্শনে এসে এ ঘোষণা দেন মন্ত্রী। তিনি বলেন, ‘চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের শাটল ট্রেন ও রেললাইনের বেহাল দশা। আমাদের কাছে এই খবর পৌঁছেনি। আমি নিজেই শাটল ট্রেন পরিদর্শনে এসে সমস্যা অনুধাবন করেছি। রেলওয়ের নতুন মহাপরিচালক ও নতুন প্রধান প্রকৌশলী যোগদান করেছেন। সমস্ত রেললাইন ঝুঁকিপূর্ণ, এখানে দায়িত্বপ্রাপ্ত কারো গাফিলতি আছে কিনা- তা তদন্ত করে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। রেলওয়েকে আধুনিকায়নের মাধ্যমে সর্বোচ্চ সেবা প্রদানের পরিকল্পনা রয়েছে বর্তমান সরকারের। রেলওয়ের কর্মকর্তা, কর্মচারী, শ্রমিকরা এ লক্ষ্যে কাজ করছেন। প্রত্যেক জেলায় রেল পৌঁছে দেয়া হবে’।
চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় রুটে শিক্ষার্থীদের জন্য নতুন একটি আধুনিক ট্রেন সংযোজনের ঘোষণা দিয়ে রেলমন্ত্রী নূরুল ইসলাম বলেন, ‘বিদেশ থেকে ব্রডগেজ কোচ আনা হবে। আগামী জুনের মধ্যে ধাপে ধাপে ২০০ কোচ ট্রেন রেলওয়েতে সংযোজন করা হবে। এর
মধ্যে একটি ট্রেন এই বিশ্ববিদ্যালয়ের জন্য দেয়া হবে। এই চেয়ার কোচ এই ট্রেনে অন্তত ১৫-১৬ টি বগি সংযুক্ত করা হবে। এই ট্রেনে টয়লেট, ওয়াইফাই, ফ্যান থাকবে। কিন্তু এই ট্রেনের নিরাপত্তা দেয়ার দায়িত্ব আপনাদের। আপনারা সবাই মিলে দেশের সম্পদের সুরক্ষা নিশ্চিত করবেন। এই ঝুঁকিপূর্ণ রেললাইন দিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা যাতায়াত করেন, তাই এটি সংস্কার করা হবে’।
এর আগে বিকাল ৩ টায় নগরীর বটতলী স্টেশন থেকে শাটল ট্রেনের সঙ্গে সংযুক্ত পরিদর্শন বগিতে করে বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসের উদ্দেশ্যে যাত্রা করেন রেলপথ মন্ত্রী নূরুল ইসলাম। বিকাল ৪টা ১০ মিনিটে বিশ্ববিদ্যালয়ের স্টেশনে পৌঁছেন তিনি। বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য (রুটিন দায়িত্ব) অধ্যাপক ড. শিরীণ আখতারসহ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক-কর্মকর্তারা তাঁকে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন। এসময় তিনি শাটলের একটি সাধারণ বগিতে উঠে শিক্ষার্থীদের দুর্ভোগের কথা শোনেন। পরে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের সভা কক্ষে গিয়ে মতবিনিময় সভায় অংশ নেন তিনি। এতে বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষে দাবি-দাওয়া তুলে ধরেন রেজিস্ট্রার (ভারপ্রাপ্ত) কেএম নুর আহমদ। এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন রেলওয়ের মহাপরিচালক মোহাম্মদ শামসুজ্জামান, মহাব্যবস্থাপক নাছির আহমেদ, অতিরিক্ত মহাব্যবস্থাপক সর্দার শাহাদাত আলী, প্রধান প্রকৌশলী সুবক্তগীন, প্রধান যান্ত্রিক প্রকৌশলী মিজানুর রহমান, প্রধান ভূসম্পদ কর্মকর্তা ইশরাত রেজা, জেলা পুলিশের হাটহাজারী সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আব্দুল্লাহ আল মাসুম, বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রক্টর প্রণব মিত্র চৌধুরী, রেলওয়ে জিআরপি পুলিশের ওসি মোস্তাফিজুর রহমান, চাকসুর সাবেক ভিসি ও সাবেক সাংসদ মাজাহারুল হক শাহ চৌধুরী, বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি রেজাউল হক রুবেল, সাধারণ সম্পাদক ইকবাল হোসেন।