আঘাত এসেছে আমরা প্রতিঘাত করবই: হানিফ

14

হেফাজতে ইসলামের তান্ডবের ক্ষত দেখতে গিয়ে আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহাবুবুল আলম হানিফ পাল্টা আঘাত হানার আওয়াজ দিয়েছেন। সোনারগাঁওয়ে এক রিসোর্টে নারীসহ হেফাজতের যুগ্ম মহাসচিব মামুনুল হক অবরুদ্ধ হওয়ার পর নারায়ণগঞ্জে তার অনুসারীদের তান্ডবের ক্ষয়ক্ষতি পরিদর্শনের সময় বুধবার দুপুরে এ হুঙ্কার দেন তিনি।
হানিফ বলেন, ‘যারা ধর্মের নামে অরাজকতা করে তাদের হাত থেকে ধর্মকে রক্ষা করতে হবে। যারা হামলার শিকার হয়েছেন, তারা মামলা করুন, তাদের প্রত্যেকের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে, কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না। আঘাত এসেছে আমরা প্রতিঘাত করবই।’ খবর বিডিনিউজের
হেফাজত ইসলামের তান্ডব প্রসঙ্গে তিনি আরও বলেন, ‘ধর্মের নামে হেফাজত অধর্মের কাজ করছে, রিসোর্টে নারী নিয়ে ধরা পড়েছে হেফাজতের নেতা। তাকে রিসোর্ট থেকে ছাড়িয়ে নিয়ে হেফাজতের নেতাকর্মীরা যেভাবে আওয়ামী লীগ অফিস, আওয়ামী লীগ ও যুবলীগের নেতাকর্মীদের বাড়িঘর ভাাঙচুর করেছে, আমি আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে এর তীব্র নিন্দা জানাই।’
গত ৮ মার্চ নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁওয়ে হেফাজত ইসলামের যুগ্ম মহাসচিব মামুনুল হক নারীসহ অবরুদ্ধ হওয়ার ঘটনার পর সহিংসতায় উপজেলা আওয়ামী লীগ অফিসসহ নেতাকর্মীদের বাড়িঘর ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগ করে।
আওয়ামী লীগ নেতা হানিফ সোনারগাঁও মোগড়াপাড়া এলাকায় ক্ষতিগ্রস্ত আওয়ামী লীগ অফিস পরিদর্শন করেন। এরপর হামলায় ক্ষতিগ্রস্ত মার্কেট ও যুবলীগ নেতা রফিকুল ইসলাম নান্নুর বাড়িতে যান। এ সময় তার সঙ্গে ছিলেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক বাহাউদ্দিন নাসিম, মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক সম্পাদক ও মুন্সীগঞ্জ-৩ আসনের সংসদ সদস্য মৃণাল কান্তি দাস, দপ্তর সম্পাদক বিপ্লব বড়ুয়া, ঢাকা বিভাগীয় আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মীর্জা আজম, স্থানীয় সাংসদ শামীম ওসমান, নজরুল ইসলাম বাবু, সাবেক সাংসদ কায়সার হাসনাতসহ স্থানীয় নেতাকর্মীরা।