অসাম্প্রদায়িক চেতনায় উৎসবে মেতে ওঠার আহবান ভারপ্রাপ্ত মেয়রের

4

চট্টগ্রাম সিটি কপোরেশনের ভারপ্রাপ্ত মেয়র আফরোজা কালাম বলেছেন, ঢাকে পড়েছে কাঠি। আলো-সানাই-শঙ্খ আর কাঁসরের রোয়াবে বাঙালি হিন্দু নারী-পুরুষ-শিশু-কিশোরদের প্রাণ আনচান করছে। মৃন্ময়ী থেকে আনন্দময়ীর রূপদান পর্বের সমাপ্তি। বাঙালি হিন্দু বিশ্বাসে, কৈলাসশিখর ছেড়ে পিতৃগৃহে আসা দুর্গার শঙ্খ, কাঁসর আর ঢাকের বাদ্যির মধ্যে শুরু বাঙালি হিন্দু সম্প্রদায়ের প্রাণের উৎসব শারদীয় দুর্গোৎসবের। চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন পূজা উদ্যাপন পরিষদের উদ্যোগে জামালখান কুসুম কুমারী স্কুল প্রাঙ্গণে শনিবার ষষ্ঠীতে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন।
ওয়ার্ড কাউন্সিলর ও চসিক পূজা উদ্যাপন পরিষদের সভাপতি শৈবাল দাশ সুমনের সভাপতিত্বে, সাধারণ সম্পাদক বিপ্লব চৌধুরী ও সাংস্কৃতিক সম্পাদক রাজেশ চক্রবর্তীর সঞ্চালনায় সভায় বক্তব্য দেন ভারতীয় সহকারী হাইকমিশনার ডা. রাজীব রঞ্জন, স্বামী শক্তিনাথানন্দ মহারাজ, কাউন্সিলর রুমকি সেনগুপ্ত, আঞ্জুমান আরা। স্বাগত বক্তব্য দেন চসিক পূজা উদ্যাপন পরিষদের সাবেক সাধারণ সম্পাদক রতন চৌধুরী, হারাধন আচার্য্য প্রমুখ।
ভারপ্রাপ্ত মেয়র আরো বলেন, শরতের আলোকময় মঙ্গল ঢাকের আওয়াজ ধ্বনিত হচ্ছে আকাশে-বাতাসে। আশুরিক অপশক্তির বিরুদ্ধে সুন্দর বিজয়ের প্রতীক সনাতনী সম্প্রদায়ের বৃহত্তম এই ধর্মীয় উৎসব দুর্গাপূজা মহাসমারোহে শুরু হয়েছে। তিনি আরো বলেন, বোধনের মন্ত্রে, ধুপের সৌরভে, মঙ্গল আরতিতে বর্ণাঢ্য উচ্ছ্বাসে দুর্গা দেবীকে জানাই স্বাগতম এবং অসাম্প্রদায়িক চেতনায় আমরা এই উৎসবে মেতে উঠি। স্বামী শক্তিনাথানন্দ মহারাজ মঙ্গলপ্রদীপ প্রজ্বালন করেন এবং ভারতীয় সহকারী হাই কমিশনার ডা. রাজীব রঞ্জন ফিতা কেটে অনুষ্ঠানের শুভ সূচনা করেন। বিজ্ঞপ্তি