অসামান্য হেমন্ত

6

 

আবার এসেছে হেমন্ত এই জলাঙ্গীর তীরে
যদিও সেই নদী নেই
যদিও সেই ঘাট নেই
যদিও সেই মাঠ নেই, ধান নেই- কৃষকের নেই জৌলুস
বসতভিটায় ভরেছে জমি, দালানে দালানে ভিড়;
মেঠো পথ নেই, ধুলা নেই, বালি নেই
ইটে-সিমেন্টে-রডে শক্ত, মজবুত পাষাণ পল্লব!
তবু কুয়াশা ঝরছে শেষরাতে, ভোরে; পা দিলে ঘাসে
বুঝা যায় শিশির।
দানব দাঁতের ফাঁক দিয়ে তবু অসামান্য হেমন্ত এখন
সামান্য শিশির, মৃদৃ শীত, ঘন নীলাকাশ বলছে-
এখনও ফুরায় নি বাংলার কার্তিক, অগ্রহায়ন
টিকে আছি তোমাদের তীক্ষ্ণ পদাঘাতেও
তবে ফিরে না এলে পরের বার, ধরে নিও
এ তোমাদেরই অনাচারের বিরূপ ফসল।