অভিষেকে জয়াবিক্রমার বিশ্বরেকর্ড

0

বাংলাদেশের বিপক্ষে দুই ম্যাচ সিরিজের প্রথম টেস্টে জায়গা না পেলেও দ্বিতীয় ম্যাচে শ্রীলঙ্কার জার্সি গায়ে খেলার সুযোগ পান উদীয়মান তরুণ লঙ্কান ন্যাটা স্পিনার প্রবীণ জয়াবিক্রম। এটিই ছিল তার অভিষেক ম্যাচ। টেস্ট ক্যারিয়ারে নিজের প্রথম ম্যাচেই বিশ্বরেকর্ড গড়েছেন ২০ বছর বয়সী এই ক্রিকেটার। অভিষেকে বাঁ-হাতি স্পিনার হিসেবে সর্বোচ্চ উইকেট নেয়ার রেকর্ড গড়েছেন তিনি। শ্রীলঙ্কার প্রথম ইনিংসে করা ৪৯৩ রানের জবাবে ব্যাট করতে নেমে জয়াবিক্রমের ঘূর্ণিতে মাত্র ২৫১ রানেই থেমেছে বাংলাদেশের ইনিংস। এই ইনিংসে দলীয় সর্বোচ্চ ৬টি উইকেট তুলে নেন।
লঙ্কানদের দ্বিতীয় ইনিংসে শেষে বাংলাদেশের জন্য টার্গেট দাঁড়ায় ৪৩৭ রান। জয়ের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে সফরকারীদের ইনিংস থেমেছে মাত্র ২২৭ রানে। এই ইনিংসে ৫টি উইকেট পেয়েছেন বিক্রম। অভিষেক টেস্টে এতদিন বাঁহাতি স্পিনারদের মধ্যে সেরা বোলিং ছিল আলফ ভ্যালেন্টাইনের। ১৯৫০ সালে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ম্যানচেস্টার টেস্টে ২০৪ রানে ১১ উইকেট নিয়েছিলেন তিনি। প্রায় ৭১ বছর পর সেই রেকর্ড এখন নিজের দখলে নিলেন জয়াবিক্রম। ১৭৮ রান খরচায় সর্বোচ্চ ১১টি উইকেট নিয়েছেন তিনি। সবমিলিয়ে টেস্ট অভিষেকে ১০ বা তার বেশি উইকেট নেয়া ১৬তম বোলার জয়াবিক্রম।
সবশেষ ২০০৮ সালে ভারতের বিপক্ষে নিজের অভিষেক ম্যাচে এ কীর্তি গড়েছিলেন অস্ট্রেলিয়ার অফস্পিনার জেসন ক্রেজা। অভিষেক ম্যাচে সেরা বোলিংয়ের বিশ্বরেকর্ডটা ভারতের সাবেক স্পিনার নরেন্দ্র হিরওয়ানির দখলে। ১৯৮৮ সালে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে চেন্নাই টেস্টে ১৩৬ রানে ১৬ উইকেট নিয়েছিলেন তিনি। দুই ইনিংসে তার শিকার ছিল যথাক্রমে ৮/৬১ ও ৮/৭৫।