অবৈধ হাসপাতাল বন্ধে অভিযান চলবে : স্বাস্থ্যমন্ত্রী

9

অবৈধ বা যন্ত্রপাতিহীন হাসপাতাল বন্ধে অভিযান চলবে বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রী অধ্যাপক ডা. সামন্ত লাল সেন। গতকাল শনিবার ঢাকায় রেডিসন ব্লু হোটলে বাংলাদেশ সোসাইটি অব মেডিসিন আয়োজিত ২৩তম ইন্টারন্যাশনাল কংগ্রস এবং সায়েন্টিফিক সেমিনার ২০২৪ এর উদ্বোধন অনুষ্ঠান শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে তিনি এ কথা বলেন। খবর বাসসের।
স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, সরকারের পাশাপাশি বেসরকারি হাসপাতালও থাকবে। কিন্তু সেসব হাসপাতালগুলোকে নিয়ম মেনে, যা যা ক্রাইটেরিয়া দরকার সেগুলো মেনে যদি হাসপাতাল চলে কোনো আপত্তি নেই। আমরা একটা সুন্দর স্বাস্থ্য ব্যবস্থা প্রতিষ্ঠা করতে চাচ্ছি, যেন সাধারণ মানুষ উন্নত চিকিৎসা সেবা পায়।
তিনি বলেন, যেখানে সেখানে আইসিইউ খোলা যায় না। আইসিইউ খুলতে গেলে হার্টের রোগী রাখতে হলে সাপোর্টিং জিনিস লাগে। আমরা মানুষের জীবন নিয়ে কাজ করি। জীবন একটাই। আমরা যে অভিযান চালাচ্ছি তা চলবে, বন্ধ হবে না। প্রয়োজনে আমিও যাবো।
সামন্ত লাল সেন বলেন, অগ্নিকান্ড রোধে সংশ্লিষ্ট সকল সরকারি সংস্থাকে সজাগ হতে হবে। সামান্য একটা ভুলের জন্য ৪৫টা প্রাণ চলে গেল। এর চেয়ে মর্মান্তিক আর কিছু হতে পারে না। আমি আশা করি এর বিরুদ্ধে অভিযান চলা উচিত ও চলবে।
বাংলাদেশ সোসাইটি অব মেডিসিনের সভাপতি প্রফেসর ডা. টিটু মিয়ার সভাপতিত্বে আয়োজিত অনুষ্ঠানে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ডা. এবিএম খুরশীদ আলমসহ দেশ ও বিদেশের বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।
এর আগে সকালে স্বাস্থ্যমন্ত্রী অধ্যাপক ডা. সামন্ত লাল সেন শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন এন্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে বেইলি রোডে অগ্নিকান্ডে আহত চিকিৎসাধীন রোগীদের সর্বশেষ অবস্থা বিষয়ে সাংবাদিকদের জানান, ১৭ সদস্যবিশিষ্ট মেডিকেল বোর্ডের সিদ্ধান্ত মোতাবেক বার্ন ইউনিটে চিকিৎসাধীন ১১ জন রোগীর মধ্যে ৬ জনকে রিলিজ করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। অবশিষ্ট ৫ জন শঙ্কামুক্ত না হওয়ায় চিকিৎসাধীন থাকবে বলে এ লক্ষ্যে গঠিত মেডিকেল বোর্ড মতামত দিয়েছে।