স্বাধীনতার চিহ্ন

রক্ত দিয়ে বায়ান্নতে বাংলা ভাষার মান কিনেছি তিরিশ লক্ষ প্রাণের দামে স্বাধীনতার প্রাণ কিনেছি। একাত্তরে খেলেছিলাম যুদ্ধ যুদ্ধ খেলা, পাকবাহিনী তাই আমাদের করেনি তো হেলা! প্রাণের মায়া তুচ্ছ...

রাইকার পুতুল

রাইকা মনির পুতুল দুটো একটা বড় একটা ছোট দুষ্টু বেজায় অতি যখন তখন ঝগড়াঝাটি জিনিস ভেঙে করছে মাটি করছে অনেক ক্ষতি। ভাংছে শিশি ভাংছে বাসন মানছে নাকো কোনই শাসন...

ইচ্ছে

বাবা মায়ের খুব আদুরে একমাত্র কন্যা, পরিবারে বইয়ে দিল আনন্দেরই বন্যা। আদর করে রাখলো যে নাম সামিয়া আফরিন, চোখের মনি হয়ে সবার কাটছে যে তার দিন। বাবা বলে...

শিশিরের শোভা

এই তো শিশির চোখ মেলেছে ভাদ্র শেষে আশ্বিনে, রাত্রি সকাল ভিজে নাকাল হচ্ছে সতেজ ঘাস দিনে। রঙিন আভায় পুব-দিগন্ত পালকি সাজায় হিম বুড়ি, দিচ্ছে উকি পাতার ফাঁকে...

বাংলাদেশকে আঁকব বলে

বাংলাদেশকে আঁকব বলে রঙ পেন্সিল হাতে সবুজ মাঠে লাল বৃত্ত মাখিয়ে নিলাম তাতে। এবার আঁকি ঘরদোর আর একটি টিনের ঘর ঘরের পরে গোয়াল ঘরটা হয় আঁকা সুন্দর। ফুল-পাখি...

দ্বন্ধ

দাদু বলেন, শীত এলেই গ্রীষ্মকালটা ভালো, এত্তো এত্তো গরম কাপড় হচ্ছি শীতে কালো। গরম কালে দাদু দেখো ফ্যান ছেড়ে দেয় জোরে- চেঁচিয়ে বলে, ওরে খোকা যাচ্ছি শুতে ফ্লোরে..... শীত কালটা লেপ কাঁথাতে ছিলাম...

আয়ানের দুষ্টুমি

এই হাসিটা আয়ান সোনার জানি, লুকোচুরি খেলার ছলে লুকিয়েছে খাটের তলে ধাক্কা লেগে পড়লো মগের পানি। পানির ধারা গড়িয়ে চলে, পাপোষ ভিজে- ‘হচ্ছে কি যে-’ ্ল্লচেঁচান দাদি ‘কি আল্লাদি তন্বিরে তুই? ঘর একাকার নোংরা জলে।’ ‘এ্যাত্তো বড় মেয়েরে তুই দেখবিনা...

শীত গড়ে দেয়

শীতটা যখন জেঁকে বসে আমার গাঁয়ের মাঝে প্রকৃতিটা সাজে তখন নানান কারুকাজে। কুয়াশার এক চাদর নিয়ে মেলে ধরে গাঁয়ে এগিয়ে চলে মানুষগুলো শিশির ধোয়া পায়ে। খেঁজুর রসের পিঠে-পায়েস তৃপ্তি ছোঁয়া আনে সুস্বাদু এর মর্মটুকু সবাই...

সুন্দরের রানী ময়ূর

অতি সুদর্শন এক প্রজাতির পাখি ‘ময়ূর’। স্ত্রী পাখি ‘ময়ূরী’ নামে পরিচিত। পুরুষ ময়ূর পাখি দেখতে অতি সুন্দর হলেও কণ্ঠস্বর কর্কশ। ময়ূরের পালককে অনেকেই মঙ্গলের...

দুষ্টু ছেলের কারুকাজ কানিজ ফাতিমা

আগামীকাল ষোলোই ডিসেম্বর, মহান বিজয় দিবস। স্কুল ছুটির দিন। তবুও যেতে হবে স্কুলে, মহান বিজয় দিবস পালন করতে। সেদিন স্কুলে নানান রকম অনুষ্ঠানের আয়োজন...

আরো খবর