শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস পালন

পূর্বদেশ ডেস্ক

35

মুক্তিযুদ্ধের চূড়ান্ত বিজয়ের ২ দিন আগে এদেশের রাজাকার, আলবদরদের সহায়তায় পাকিস্তানি সৈন্যরা বাংলাদেশকে মেধা ও মননশূন্য করতে দেশের শীর্ষস্থানীয় শিক্ষক, চিকিৎসক, সাহিত্যিক ও বুদ্ধিজীবীদেরকে ঘর থেকে তুলে নিয়ে নির্মমভাবে হত্যা করে। সেই স্বাধীনতা বিরোধীদের বাঙালি জাতি কখনো ক্ষমা করবেন না। গতকাল শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস উপলক্ষে আয়োজিত বিভিন্ন সভায় বক্তারা এসব কথা বলেন।
এম এ লতিফ এমপি
শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস উপলক্ষে চট্টগ্রাম-১১ আসনের বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ এবং এর সহযোগী অঙ্গ সংগঠনের উদ্যোগে আগ্রাবাদস্থ পুরাতন চেম্বার হাউস মিলনায়তনে ১৪ ডিসেম্বর দুপুরে আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। মহানগর আওয়ামীলীগের শিল্প ও বাণিজ্য বিষয়ক সম্পাদক মাহবুবুল হক মিয়া’র সভাপতিত্বে সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন এম এ লতিফ এমপি। ৩৭নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি হোসেন মুরাদ’র সঞ্চালনায় বক্তব্য দেন আবদুল আহাদ, আজিজ মোল্লা, নজরুল ইসলাম বাহাদুর, সেলিম রেজা, আলী বক্স, সালাউদ্দিন ইবনে আহমদ, মো. আবদুল মন্নান, মো. হাসান মুরাদ, হাজী হাসান, মো. আলী আকবর, আবদুল হান্নান, আসিফ খান, দেবাশীষ পাল দেবু, নায়েবুল ইসলাম ফটিক, মেজবাহ উদ্দিন মোর্শেদ, ইমতিয়াজ বাবলা, মো. ইকবাল হোসেন, জাহিদ হোসেন খোকন, অধ্যাপিকা বিবি মরিয়ম।
চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়
চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের উদ্যোগে যথাযোগ্য মর্যাদায় শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস পালন করা হয়। সকাল ৮টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ বুদ্ধিজীবী স্মৃতিসৌধে পুষ্পমাল্য অর্পণ করে দেশ ও জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তান শহীদ বুদ্ধিজীবীদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করেন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. শিরীণ আখতার। পরে উপাচার্র্য চবি বঙ্গবন্ধু চত্বরে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে পুষ্পমাল্য অর্পণ করে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। উপাচার্যের পর শহীদ বুদ্ধিজীবী স্মৃতিসৌধে পুষ্পস্তবক অর্পণ করে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন চবি শিক্ষক সমিতি, অনুষদসমূহের ডিনবৃন্দ, হলসমূহের প্রভোস্টবৃন্দ, প্রক্টর ও সহকারী প্রক্টরবৃন্দ, সভাপতি-পরিচালক ফোরাম, অফিসার সমিতি, চবি ক্লাব (ক্যাম্পাস), সমন্বয় কর্মকর্তা বিএনসিসি, চবি ল্যাবরেটরি স্কুল এন্ড কলেজ, কর্মচারি সমিতি, কর্মচারি ইউনিয়ন, সাংবাদিক সমিতি, বঙ্গবন্ধু পরিষদ সহ বিভিন্ন সামাজিক, সাংস্কৃতিক ও রাজনৈতিক সংগঠনসমূহ। কর্মসূচির অংশ হিসেবে কালো ব্যাজ ধারণ করা হয় এবং সকাল ৯টায় বঙ্গবন্ধু চত্বরে অনুষ্ঠিত হয় ‘বাংলাদেশের স্বাধীনতা সংগ্রামে শহীদ বুদ্ধিজীবীদের অবদান’ শীর্ষক আলোচনা সভা। আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন চট্টগ্রাম বিশ^বিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. শিরীণ আখতার।
অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন এবং আলোচনা সভায় স্বাগত বক্তব্য দেন চবি রেজিস্ট্রার (ভারপ্রাপ্ত) কে এম নুর আহমদ। অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য দেন চবি কলা ও মানববিদ্যা অনুষদের ডিন প্রফেসর ড. মো. সেকান্দর চৌধুরী, চবি শিক্ষক সমিতির সহ-সভাপতি প্রফেসর ড. মোহাম্মদ সহিদ উল্যাহ ও সাধারণ সম্পাদক প্রফেসর ড. অঞ্জন কুমার চৌধুরী, সিনেট সদস্য প্রফেসর বেনু কুমার দে, শহীদ আবদুর রব হলের প্রভোস্ট প্রফেসর ড. এ কে এম মাঈনুল হক মিয়াজী, সংগীত বিভাগের সভাপতি প্রফেসর সুকান্ত ভট্টাচার্য, অফিসার সমিতির সভাপতি এ কে এম মাহফুজুল হক, চবি ক্লাব (ক্যাম্পাস ও শহর)-এর পক্ষে সুলতানা সুকন্যা বাশার, বঙ্গবন্ধু পরিষদ চবি’র সাধারণ সম্পাদক মশিবুর রহমান, কর্মচারী সমিতির সভাপতি মো. আনোয়ার হোসেন ও কর্মচারী ইউনিয়নের সভাপতি মো. আবদুল হাই। শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস উপলক্ষে সকালে বিশ্ববিদ্যালয়ের ভবনসমূহে জাতীয় পতাকা অর্ধনমিত এবং কালো পতাকা উত্তোলন করা হয়। ফজরের নামাজের পর বিশ্ববিদ্যালয়ের সকল মসজিদে শহীদ বুদ্ধিজীবীদের রুহের মাগফেরাত কামনা করে মোনাজাত এবং অন্যান্য ধর্মাবলম্বীদের স্ব স্ব উপাসনালয়ে শহীদ বুদ্ধিজীবীদের আত্মার সদগতি কামনা করে প্রার্থনা করা হয়।
চুয়েট পরিবারের শ্রদ্ধা নিবেদন
চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (চুয়েট) শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস উপলক্ষে শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করেছেন চুয়েট পরিবার। শনিবার দিবসের প্রথম প্রহরে চুয়েটের কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণের মধ্য দিয়ে দিনব্যাপী কর্মসূচি উদ্বোধন করেন চুয়েটের ভাইস চ্যান্সেলর অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ রফিকুল আলম। শ্রদ্ধা নিবেদনকালে প্রকৌশল ও প্রযুক্তি অনুষদের ডীন অধ্যাপক ড. মো. রেজাউল করিম, যন্ত্রকৌশল অনুষদের ডীন অধ্যাপক ড. জামাল উদ্দিন আহম্মদ, ম্যাটেরিয়াল সায়েন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের বিভাগীয় প্রধান ও রেজিস্ট্রার (অতিরিক্ত দায়িত্ব) অধ্যাপক ড. ফারুক-উজ-জামান চৌধুরী, বায়োমেডিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের বিভাগীয় প্রধান অধ্যাপক ড. কাজী দেলোয়ার হোসেন, ছাত্রকল্যাণ পরিচালক অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ মশিউল হক, শেখ রাসেল হলের প্রভোস্ট ড. মোহাম্মদ কামরুল হাছানসহ চুয়েট পরিবারের অন্যান্য সদস্যগণ উপস্থিত ছিলেন। সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকমÐলী, কর্মকর্তা-কর্মচারী ও ছাত্র-ছাত্রীদের অংশগ্রহণে চুয়েট স্বাধীনতা চত্ত¡র থেকে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার পর্যন্ত মৌন মিছিল করা হয়। এ সময় কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে শহীদ বুদ্ধিজীবীদের স্মরণে মোমবাজি প্রজ্বালন করা হয়।
সিভাসু
চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি ও এনিম্যাল সাইন্সেস বিশ^বিদ্যালয়ে (সিভাসু) শনিবার শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস পালিত হয়েছে। এ উপলক্ষে আয়োজিত কর্মসূচির মধ্যে ছিল কালো ব্যাজ ধারণ, কালো পতাকা উত্তোলন ও জাতীয় পতাকা অর্ধনমিতকরণ, শোভাযাত্রা, পুষ্পাঞ্জলি প্রদান এবং শহীদ বুদ্ধিজীবীদের জন্য বিশেষ দোয়া ও মোনাজাত। সকাল ৮টায় উপাচার্য প্রফেসর ড. গৌতম বুদ্ধ দাশ এর নেতৃত্বে বের করা শোকর‌্যালি বিশ^বিদ্যালয়ের শিক্ষক, কর্মকর্তা, শিক্ষার্থী ও কর্মচারীরা অংশগ্রহণ করেন। শেষে বিশ^বিদ্যালয়ের নিকটস্থ পাহাড়তলী বধ্যভূমিতে ফুল দিয়ে শহীদ বুদ্ধিজীবীদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করেন উপাচার্য প্রফেসর ড. গৌতম বুদ্ধ দাশ। এরপর শিক্ষক সমিতি, অফিসার সমিতি, প্রগতিশীল শিক্ষক ফোরাম, কর্মচারী ইউনিয়নসহ বিভিন্ন সংগঠন বধ্যভূমিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন। এসময় উপস্থিত ছিলেন বিশ^বিদ্যালয়ের ফুড সায়েন্স এন্ড টেকনোলজি অনুষদের ডিন প্রফেসর ড. জান্নাতারা খাতুন, পোল্ট্রি রিসার্চ এন্ড ট্রেনিং সেন্টারের পরিচালক প্রফেসর ড. পরিতোষ কুমার বিশ^াস, রেজিস্ট্রার মীর্জা ফারুক ইমাম, ইনস্টিটিউশনাল কোয়ালিটি এসিউরেন্স সেল এর পরিচালক প্রফেসর ড. কবিরুল ইসলাম খান, পরিচালক (গবেষণা ও সম্প্রসারণ) প্রফেসর ড. মোহাম্মদ আলমগীর হোসেন, পরিচালক (ছাত্রকল্যাণ) প্রফেসর ড. মেজবাহ উদ্দিন, প্রক্টর প্রফেসর গৌতম কুমার দেবনাথ, ভেটেরিনারি ক্লিনিক্স এর পরিচালক প্রফেসর ড. ভজন চন্দ্র দাস এবং পরিচালক (অর্থ ও হিসাব) মো. আবুল কালাম প্রমুখ।
চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাব
চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবের উদ্যোগে শনিবার প্রেস ক্লাবের পিএইচপি ভিআইপি লাউঞ্জে শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবসের আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। প্রেস ক্লাব সভাপতি আলী আব্বাসের সভাপতিত্বে ও যুগ্ম সম্পাদক নজরুল ইসলামের সঞ্চালনায় সভায় বক্তব্য দেন প্রেস ক্লাবের সিনিয়র সহসভাপতি সালাহউদ্দিন মো. রেজা, সাধারণ সম্পাদক ফরিদ উদ্দিন চৌধুরী, সাবেক সাধারণ সম্পাদক মহসিন চৌধুরী, বিএফইউজে’র সহসভাপতি রিয়াজ হায়দার চৌধুরী, বিএফইউজে’র সাবেক সহসভাপতি শহীদ উল আলম, সিইউজে’র সভাপতি নাজিমুদ্দীন শ্যামল, সিইউজে’র সাবেক সিনিয়র সহ-সভাপতি রতন কান্তি দেবাশীষ, কার্যকরী সদস্য মোহাম্মদ শামসুল ইসলাম এবং সাংবাদিক কো-অপারেটিভ হাউজিং সোসাইটির সাবেক চেয়ারম্যান মইনুদ্দীন কাদেরী শওকত। সভার শুরুতে বুদ্ধিজীবীদের আত্মার মাগফেরাত কামনা করে দোয়া ও মুনাজাত করা হয়। দোয়া-মুনাজাত করেন ক্লাবের কার্যকরী সদস্য স ম ইব্রাহীম। এ সময় সাংস্কৃতিক সম্পাদক রূপম চক্রবর্তী, সমাজসেবা ও আপ্যায়ন সম্পাদক মোহাম্মদ আইয়ুব আলী, স্থায়ী সদস্য দেবপ্রসাদ দাস দেবু, মাখন লাল সরকার, রোকসারুল ইসলাম, জামালুদ্দীন ইউছুফ, আফজল রহিম সিদ্দিকী, আল রাহমান, সহিদুল ইসলাম সহিদ, জসিম উদ্দিন ছিদ্দিকী, বিশ্বজিৎ বড়–য়া, প্রদীপ নন্দী, আলমগীর সবুজ, সাইদুল আজাদ, মোহাম্মদ মহিউদ্দিন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। এর আগে সকালে প্রেস ক্লাব ভবনের সামনে জাতীয় পতাকা ও কালো পতাকা উত্তোলন করা হয়। এছাড়া শুক্রবার দিবাগত রাত ১২টা ০১ মিনিটে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবের পক্ষ থেকে শহীদ বুদ্ধিজীবীদের প্রতি বিনম্র শ্রদ্ধা জানানো হয়।
ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটি
নগরীর মোমিন রোডস্থ সুপ্রভাত স্টুডিও হলে একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটি চট্টগ্রাম জেলার উদ্যোগ শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় প্রধান আলোচকের বক্তব্যে শহীদ বুদ্ধিজীবী ডা. আলীম চৌধুরীকে দেশমাতৃকার তরে জীবন উৎসর্গকারী শ্রেষ্ঠ সন্তান অভিহিত করে তাঁর কন্যা ডা. নুজহাত চৌধুরী শম্পা তরুণ প্রজন্মের প্রতি মুক্তিযুদ্ধে শহীদদের কণ্ঠস্বর হওয়ার আহ্বান জানিয়ে বলেন, তোমার যে শত্রু সে কখনো তোমাকে জায়গা দেবে না। সে কিন্তু তোমাকে ভুলেনি। সে তার পরাজয়ের প্রতিশোধ নেওয়ার জন্য এই মুহূর্তে সংগঠিত হচ্ছে। আমরা যদি আমাদের শত্রুদের নির্মূল করতে না পারি, তবে তারা আমাদের ছোবল মারবেই। সেই দিন আমরা আবার জয়ী হবো, যদি আমাদের হৃদয়ে ইতিহাস-আবেগ-সততা থাকে এবং সংবিধানের চার মূলনীতির শক্তিতে বলিয়ান হই। আমরা আবার জিতবো। সত্য সব সময় জিতবে।
সংগঠনের কেন্দ্রীয় সহ-সাধারণ সম্পাদক ও বিভাগীয় সমন্বয়ক লেখক-সাংবাদিক শওকত বাঙালির সভাপতিত্বে ও জেলা কার্যকরী সাধারণ সম্পাদক মো. অলিদ চৌধুরীর সঞ্চালনায় বিশেষ অতিথি ছিলেন ডেপুটি এটর্নি জেনারেল অ্যাডভোকেট মো. আবুল হাশেম। সূচনা বক্তব্য দেন জেলা নির্মূল কমিটির সাধারণ সম্পাদক, সাবেক চসিক প্যানেল মেয়র প্রফেসর রেখা আলম চৌধুরী। আলোচনায় অংশ নেন জেলা সহ-সভাপতি স্বপন সেন, দীপংকর চৌধুরী কাজল, হেলাল উদ্দিন, সম্পাদক মণ্ডলীর সদস্য হাবিব উল্ল্যাহ চৌধুরী ভাস্কর, আবু সাদাত মো. সায়েম, আবদুল মান্নান শিমুল, নাজমুল আলম খান, ফারুক চৌধুরী, সুমন চৌধুরী, মিথুন মল্লিক, সাহাব উদ্দিন, অসিত বরণ বিশ^াস, রুবা আহসান, সুচিত্রা গুহ টুম্পা, রাজীব চৌধুরী, রুবেল আহমেদ, মো. আলমগীর, আখতার হোসেন, মুক্তা জামান, পৌলম দেব, মোস্তাক আহমেদ মুরাদ, আকিব জাবেদ, দিপু বড়–য়া, অ্যাডভোকেট আরিফ উদ্দীন চৌধুরী, রাজিব ভট্টাচার্য্য, হাসানুর রহমান জিয়াদ, ইমন শীল, রকিব হাসান, সাজ্জাদ বিন সাফা, সাজ্জাদ হোসেন তালুকদার, জামশেদুল ইসলাম চৌধুরী, জয় প্রমুখ।
চিটাগং ইন্ডিপেন্ডেন্ট ইউনিভার্সিটি
শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবসের চেতনা অন্তরে ধারণ করে সৃষ্টিশীল বাংলাদেশ গড়তে আগামি প্রজন্মের প্রতি আহŸান জানিয়েছেন চিটাগং ইন্ডিপেন্ডেন্ট ইউনিভার্সিটির (সিআইইউ) উপাচার্য ড. মাহফুজুল হক চৌধুরী। শনিবার সকালে নগরের জামাল খানের সিআইইউ ক্যাম্পাসের কনফারেন্স রুমে অনুষ্ঠিত শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবসের আলোচনা সভায় সভাপতির বক্তব্যে এসব কথা বলেন উপাচার্য। এই সময় অনুষ্ঠানে বিশ^বিদ্যালয়ের বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষক ও ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠানের শুরুতে শহীদ হওয়া বুদ্ধিজীবীদের স্মরণে এক মিনিট নীরবতা পালন করা হয়। বিভিন্ন স্কুলের ডিন, বিভাগীয় প্রধান ও ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার দিবসটি নিয়ে তাদের ভাবনার কথা তুলে ধরেন অনুষ্ঠানে। অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে আরও বক্তব্য দেন স্কুল অব লিবারেল আর্টস অ্যান্ড সোশ্যাল সায়েন্স এর ডিন অধ্যাপক কাজী মোস্তাইন বিল্লাহ, বিজনেস স্কুলের ডিন ড. নাঈম আবদুল্লাহ, উপদেষ্টা অধ্যাপক ড. আইয়ুব ইসলাম, অধ্যাপক ড. নুরুল আবসার নাহিদ, স্কুল অব সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং অনুষদের ডিন ড. আসিফ ইকবাল, স্কুল অব ল’র সহকারি ডিন মোহাম্মদ আকতারুল আলম চৌধুরী, ইংরেজি বিভাগের প্রভাষক নসিহ্ উল ওয়াদুদ আলম, রাশেদা ফেরদৌস, ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার আনজুমান বানু লিমা প্রমুখ। বিজ্ঞপ্তি