৩ লাখ সেনা নিয়ে রাশিয়া ও চীন সামরিক মহড়া শুরু

7

অন্তত তিন লাখ সেনা নিয়ে বিশাল সামরিক মহড়া শুরু করেছে রাশিয়া। এতে হাজার হাজার ট্যাংক, বিমান ও যুদ্ধজাহাজ অংশ নিচ্ছে। সোভিয়েত ইউনিয়নের পতনের পর থেকে এটিকে সবচেয়ে বড় সামরিক মহড়া হিসেবে ধরা হচ্ছে। দূর প্রাচ্যের রুশ সীমান্তে অনুষ্ঠিত এ মহড়ায় রাশিয়ার সেনাদের সঙ্গে অংশ নিচ্ছে চীন ও মঙ্গোলিয়ার কয়েক হাজার সেনা। মঙ্গলবার থেকে শুরু হওয়া মহড়া চলবে ১৭ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত। রুশ প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে প্রকাশিত ছবিতে ট্যাঙ্ক, সাঁজোয়া যান ও যুদ্ধজাহাজের তৎপরতা দেখা গেছে। পাশাপাশি কম্ব্যাট হেলিকপ্টার ও যুদ্ধবিমানকে প্রাথমিক প্রস্তুতির পর্যায়ে দেখা গেছে। চলতি মহড়ায় বেশকিছু নতুন যুদ্ধ সরঞ্জাম প্রথমবারের মতো প্রদর্শন করা হবে। এছাড়া, এয়ারবোর্ন ট্রুপসও মোতায়েন করা হচ্ছে। রাশিয়ার প্রতিরক্ষামন্ত্রী সার্গেই শোইগু ১৯৮১ সালে সোভিয়েত আমলে আয়োজিত জাপাদ-৮১ মহড়ার পর এবারের মহড়াকেই সবচেয়ে বড় বলে অভিহিত করেছেন। ভস্তক-২০১৮ নামের এ মহড়াটিতে চীনের সেনাবাহিনীর সঙ্গে রুশ সৈন্যদের যৌথ মহড়া হওয়ারও কথা রয়েছে। দেশ দুটি এর আগেও বেশ কয়েকবার যৌথ মহড়ায় অংশ নিলেও সেগুলো এবারের মত এত বিশাল ছিল না বলে খবরে বলা হচ্ছে।
ক্রেমলিনের মুখপাত্র দিমিত্রি পেসকভ বলেছেন, চলমান বিশ্ব পরিস্থিতিতে এ ধরনের সামরিক মহড়া চালানো জরুরি হয়ে পড়েছিল। চীনা প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং মঙ্গলবার রাশিয়া সফরে গেছেন। মহড়ায় চীনের সাড়ে তিন হাজার সেনার অংশগ্রহণের প্রশংসা করে রুশ প্রেসিডেন্ট ভøাদিমির পুতিন বলেছেন, চীনের সঙ্গে মস্কোর দিন দিন সম্পর্ক ঘনিষ্ঠ হচ্ছে। রুশ সামিরক বাহিনীর সর্বাধিনায়ক হিসেবে তিনি সপ্তাহের শেষ দিকে মহড়া পরিদর্শন করবেন।
ভস্টক-২০১৮ মহড়াটি যেখানে হচ্ছে, সেখান থেকে রাশিয়ার রাজধানী মস্কোর দূরত্ব ৫ হাজার কিলোমিটার। চীন সীমান্তের কাছে অনুষ্ঠিত এ মহড়ার ওপর জাপান, উত্তর ও দক্ষিণ কোরিয়াও নজর রাখছে।