চট্টগ্রাম বন্দর

৩০ লাখ টাকার তুলার বদলে এল ২০ টন চীনা বালু

নিজস্ব প্রতিবেদক

17

চীন থেকে আমদানি করা ৩০ লাখ টাকার চালানে তুলার বদলে এসেছে ৯১৬ ব্যাগ ভর্তি ২০ টন বালু। গতকাল মঙ্গলবার নগরীর ইপিজেড এলাকার বেসরকারি কিউএনএস ডিপোতে ৪০ ফুট লম্বা কনটেইনার খোলার পর বিষয়টি নিশ্চিত হন কাস্টম হাউসের কর্মকর্তারা। এটি মানি লন্ডারিং, চোরাচালান নাকি রপ্তানিকারক প্রতিষ্ঠানের ভুল বা প্রতারণা খতিয়ে দেখছে কর্তৃপক্ষ।
কাস্টম হাউস সূত্রে জানা গেছে, সাধারণত মানি লন্ডারিংয়ের ঘটনা ঘটে বড় চালানে। ৩০ লাখ টাকার চালানে এ ধরনের আশঙ্কা কম। হতে পারে রপ্তানিকারক প্রতিষ্ঠানের ভুল বা প্রতারণা। আবার যে পণ্য এসেছে সেগুলো যদি সিলিকা বালু হয় তবে তার শুল্ক ২০ শতাংশ। এ ক্ষেত্রে মিথ্যা ঘোষণা বা শুল্কফাঁকির বিষয় সামনে চলে আসবে।
কাস্টম হাউসের সহকারী রাজস্ব কর্মকর্তা মো. আতিক জানান, নগরীর কোতোয়ালি থানাধীন ৮২৯ জুবিলি রোডের আনজুমান শপিং কমপ্লেক্সের মেসার্স সৈয়দ ট্রেডার্সের নামে চালানটি চীন থেকে বন্দরে আসে। চালানটি খালাসের দায়িত্বে ছিলো আগ্রাবাদ বাদামতল এলাকার সিঅ্যান্ডএফ প্রতিষ্ঠান এসজিএস কোম্পানি। গত ১৬ অক্টোবর চালানটির বিল অব এন্ট্রি (সি-১৬০৪১৫৫) দাখিল করা হয় কাস্টম হাউসে। চালানটির বিপরীতে ৫ শতাংশ হারে শুল্ক কর পরিশোধ করা হয় ১ লাখ ৫৭ হাজার টাকা।
তিনি জানান, চালানটির শতভাগ কায়িক পরীক্ষার পর ৯১৬ ব্যাগে ২০ টন বালু পাওয়া যায়। এসব বালুর নমুনা সংগ্রহ করে ল্যাব টেস্টে পাঠানো হচ্ছে।