হাসনাইনের হ্যাটট্রিক ছাপিয়ে শ্রীলঙ্কার জয়

2

ক্যারিয়ারের মাত্র দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টি খেলতে নেমেই হ্যাটট্রিকের দেখা পেলেন মোহাম্মদ হাসনাইন। তবে এমন মাইলফলক ম্যাচেও নিজ দল পাকিস্তানকে জেতাতে পারলেন না তিনি। উল্টো ব্যাটসম্যানদের ব্যর্থতায় দাপুটে জয় তুলে নিল শ্রীলঙ্কা। ৬৪ রানের জয়ে সিরিজে ১-০ ব্যবধানে এগিয়ে গেল সফরকারীরা। শনিবার লাহোরে মুখোমুখি হয় দুদল। যেখানে প্রথমে ব্যাট করা শ্রীলঙ্কা নির্ধারিত ২০ ওভার শেষে ৫ উইকেট হারিয়ে ১৬৫ রান করে। জবাবে ব্যাট করতে নেমে ১৭.৪ ওভারে ১০১ রানে গুটিয়ে যায় পাকিস্তান। ১৬তম ওভারের শেষ বল ও ১৯ ওভারের প্রথম দুই বলে উইকেট নিয়ে হ্যাটট্রিক পূরণ করেন হাসনাইন। তিনি ভানুকা রাজাপাকসা, দাসুন শানাকা ও শেহান জয়সুরিয়ার উইকেট তুলে নেন।
১৬৬ রানের টার্গেটে ব্যাটিং করতে নেমে শ্রীলঙ্কান বোলারদের তোপে আসা যাওয়ায় মিছিলে ব্যস্ত স্বাগতিকদের মধ্যে সর্বোচ্চ ২৫ রান করেন ইফতিখার আহমেদ।
ম্যাচ সেরা নির্বাচিত হয়েছেন গুনাথিলাকা।

মাহমুদুলের সেঞ্চুরিতে যুবাদের সিরিজ জয়

মাহমুদুল হাসান জয়ের দ্রæতগতির সেঞ্চুরিতে ভর করে নিউজিল্যান্ড অনূর্ধ্ব-১৯ দলের বিপক্ষে বড় ব্যবধানে জিতেছে বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯ দল। তৃতীয় ওয়ানডেতে কিউইদের ৮ উইকেটে হারায় জুনিয়র টাইগাররা। এই জয়ের ফলে পাঁচ ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ দুই ম্যাচ হাতে রেখেই নিজেদের করে নিল যুবারা।
৯৫ বলে সেঞ্চুরি পূর্ণ করেন মাহমুদুল হাসান। ৯৫ বলের ইনিংসে ছিল ১৬ টি ৪ ও একটি ছক্কা। অনূর্ধ্ব-১৯ দলের হয়ে এটি তৃতীয় সেঞ্চুরি তার। অনূর্ধ্ব-১৯ দলে এনামুল হক বিজয়ের সাথে যৌথভাবে ৩টি সেঞ্চুরির মালিক এখন তিনি। দ্বিতীয় ওয়ানডেতে ৯৯ রানে আউট হয়ে সেঞ্চুরি বঞ্চিত হয়েছিলেন জয়। কিন্তু এদিন কোনো ভুল করেননি তিনি। জয়ের জন্য যখন দরকার ১ রান আর সেঞ্চুরির জন্য ৩ রান, তখন ছক্কা দিয়ে সেঞ্চুরি পূর্ণ করেন জয়।
প্রথম ব্যাট করে ৮ উইকেটে ২২৩ রান করে নিউজিল্যান্ড। বাংলাদেশের হয়ে তানজীম হাসান সাকিব, অভিষেক দাস ও হাসান মুরাদ প্রত্যেকে দুটি করে উইকেট নেন।
২২৪ রানের টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে ১১ রানেই প্রথম উইকেট হারায় বাংলাদেশ। মাত্র এক রান করে আউট হন আনিস সরকার। দ্বিতীয় উইকেট জুটিতে ৯০ রান তুলে জয়ের রাস্তা চওড়া করেন ওপেনার তানজীদ হাসান ও মাহমুদুল হাসান জয়। ৬৫ রান করে তানজীদ আউট হওয়ার পর আর কোনো উইকেট হারায়নি বাংলাদেশ। মাহমুদুলের সঙ্গে ৫১ রান করে অপরাজিত থাকেন তৌহিদ হৃদয়। ১৩ ওভার এক বল বাকি থাকতে ম্যাচ জিতে নেয় বাংলাদেশ। এই জয়ে পাঁচ ম্যাচের সিরিজে ৩-০ লিড বাংলাদেশের। সিরিজের চতুর্থ ওয়ানডে হবে আগামী ৯ অক্টোবর।