হাটহাজারী আহলে সুন্নাত ওয়াল জমা’আতের ইফতার মাহফিল

হাটহাজারী প্রতিনিধি

21

পুঁজিবাদী ব্যবস্থার বিরুদ্ধে যাকাত এক কার্যকরী পদক্ষেপ। আল্লাহ পাক বিত্তবানদের প্রয়োজনাতিরিক্ত ধন সম্পদের একটি অংশ বাধ্যতামূলকভাবে বিত্তহীনদের দেওয়ার বিধান করে সমাজ ও রাষ্ট্রের আর্থ-সামাজিক বৈষম্যরোধের যে ব্যবস্থা করেছেন তা অর্থনীতির ভারসাম্য বাজায় রাখার পক্ষে এক পরীক্ষিত ব্যবস্থা। এতে যাকাত দাতার সম্পদ কমে না বরং সমাজের বঞ্চিত অবহেলিত গরীব মিসকিনদের ক্রয় ক্ষমতা বৃদ্ধি পাওয়ার কারণে বিত্তবানদের পণ্য বিক্রি ও উৎপাদনে উন্নতি ঘটায়। যা দেশে শিল্প উন্নয়ন ও ব্যবসা বাণিজ্যের প্রসার ঘটিয়ে সমাজ থেকে দারিদ্র দূর করে দিতে পারে। শনিবার আহলে সুন্নাত ওয়াল জমা’আত সমন্বয় কমিটি হাটহাজারী উপজেলা আয়োজিত তাকওয়া ভিত্তিক সমাজ প্রতিষ্ঠায় রমজানের ভ‚মিকা, দারিদ্র বিমোচনে যাকাতের ভ‚মিকা, ঐতিহাসিক বদর দিবস ও ইসলামের চতুর্থ খলিফা শেরে খোদা মওলা আলী (রা.)’র শাহাদাৎ বার্ষিকী স্মারক আলোচনা সভা ও ইফতার মাহফিলে প্রধান অতিথির বক্তব্যে বাংলাদেশ ইসলামী ফ্রন্টের চেয়ারম্যান আল্লামা এম. এ মান্নান এসব কথা বলেন। হাটহাজারী পৌরসভার কলাবাগানস্থ বিদ্যুৎ অফিসের সম্মুখে অনুষ্ঠিত এ অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন সংগঠনের আহব্বায়ক মাওলানা মীর হাসানুল করীম। এতে প্রধান বক্তা হিসেবে ছিলেন এডভোকেট মোছাহেব উদ্দিন বখতিয়ার। সংগঠনের সদস্য সচিব মোহাম্মদ সাকুর মিয়ার সঞ্চালনায় আলোচনায় অংশ নেন উপাধ্যক্ষ মাওলানা শামসুল আলম নঈমী, অধ্যক্ষ মাওলানা ইকবাল হোছাইন আল-ক্বাদেরী।
এতে উপস্থিত ছিলেন এডভোকেট জাহাঙ্গীর আলম চৌধুরী, মাওলানা আবদুল খালেক, মাওলানা ওবাইদুল মোস্তফা কদম রসূলী, মাওলানা এস.এম. ইয়াছিন হোছাইন হায়দরী, মোাম্মদ আলী, দিদারুল আলম চৌধুরী, অধ্যাপক মোহাম্মদ গিয়াস উদ্দিন, অধ্যক্ষ আল্লামা তৈয়ব আলী, উপাধ্যক্ষ আল্লামা ছৈয়দ নুরুল আমিন, ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ মাওলানা আবুল বশর ছিদ্দীকি, মাওলানা জসিম উদ্দীন আল কাদেরী, মাওলানা তফাজ্জল আহম্মদ চৌধুরী, মাওলানা ইব্রাহীম, অধ্যাপক আলফাজ উদ্দিন, মোহাম্মদ তৌহিদুল আনোয়ার চৌধুরী, মাওলানা মুহাম্মদ আবদুল খালেক, মাওলানা আ. ন. ম তৈয়ব আলী প্রমুখ।