ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করলেন মন্ত্রী আনিস

হাটহাজারীতে হচ্ছে ইকোপার্ক  ও বোটানিক্যাল গার্ডেন

হাটহাজারী প্রতিনিধি

44

পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন বিষয়ক মন্ত্রী ব্যারিস্টার আনিসুল ইসলাম মাহমুদ এমপি বলেছেন, বিপন্ন জীববৈচিত্র্য রক্ষা ও বিলুপ্তপ্রায় উদ্ভিদ প্রজাতিকে নতুন প্রজন্মের কাছে পরিচিতি করার প্রয়োজনে ইকোপার্ক ও বোটানিক্যাল গার্ডেন গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে। অনেক দেশীয় গাছ এখন বিলুপ্ত হয়ে গেছে। একসময় উপজেলার পশ্চিমে পাহাড়সহ প্রত্যেক গ্রামে দেশীয় প্রজাতীর গাছের ছড়াছড়ি ছিল। এসব গাছ পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষার কাজে সহায়ক শক্তি হিসাবে কাজ করত। গতকাল শনিবার বিকালে হাটহাজারী উপজেলার ছোট কাঞ্চনপুর এলাকার ৩শ ৪০ একর ভূমির ওপর প্রতিষ্ঠিত ইকোপার্ক ও বোটানিক্যাল গার্ডেনের গুরুত্ব বর্ণনা ও সামাজিক বনায়নে উপকারভোগীদের মধ্যে চেক বিতরণ অনুষ্ঠানেপ্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। ছোট কাঞ্চনপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে প্রধান বন সংরক্ষক শফিউল আলম চৌধুরীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় মন্ত্রী আরো বলেন, দেশের জনসংখ্যা বৃদ্ধি এবং বর্ধিত জনসংখ্যার বসতি স্থাপন ও জ¦ালানি হিসাবে ব্যবহারের জন্য ব্যাপক হারে গাছ নিধন করতে গিয়ে বনভূমি ক্রমে নষ্ট হয়ে যাচ্ছে। বনভূমি রক্ষার জন্য সরকার সামাজিক বনায়নের উদ্যোগ গ্রহণ করেছে। মানুষ ও প্রাণীকূলের বেঁচে থাকার প্রয়োজনীয় উপাদান অক্সিজেন গাছ থেকে পাওয়া যায়। সবুজ প্রকৃতি সৃষ্টির জন্য মানুুষকে আগ্রহী করতে সরকার সামাজিক বনায়নের উদ্যোগ নিয়েছে। এতে বনায়নের প্রতি মানুষের আগ্রহ বৃদ্ধি পেয়েছে। হাটহাজারী রেঞ্জের সহকারী বন সংরক্ষক শওকত ইমরান আরাফাত এর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক ইউনুস গণি চৌধুরী, চট্টগ্রাম অঞ্চলের বন সংরক্ষক ড. জগলুল হোসেন, বিভাগীয় বন কর্র্মকর্র্তা বখতিয়ার নুর সিদ্দিকী। এ সময় মন্ত্রীর সহকারি একান্ত সচিব মঞ্জুরুল আলম মঞ্জু, বিভিন্ন ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানবৃন্দ, স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তি ও প্রশাসনের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।