হংকংয়ে নতুন করে বিক্ষোভ, পুলিশের টিয়ার গ্যাস

4

এক সপ্তাহের তুলনামূলক শান্ত অবস্থার পর ফের সরকার-বিরোধী বিক্ষোভে অশান্ত হয়ে উঠেছে হংকং পরিস্থিতি। রবিবার হংকংয়ের হাজার হাজার বাসিন্দা স্বাধীনতার দাবিতে রাস্তায় নেমে বিক্ষোভ করেছে। ‘আমাদের সময়ের বিপ্লব,’ ‘হংকং মুক্ত কর’ স্লোগানে বিক্ষোভ করে তারা। বিক্ষোভ ছত্রভঙ্গ করতে এদিনও পুলিশ টিয়ার গ্যাস নিক্ষেপ করেছে। সিম সা সুই শপিং এলাকায় এ বিক্ষোভ হয়। হংকংয়ের বিক্ষোভকারীদের প্রতি যুক্তরাষ্ট্রের সমর্থনের জন্য কৃতজ্ঞতা জানাতে শত শত হংকংবাসী মার্কিন কনস্যুলেট অভিমুখে পদযাত্রা করার পর রোববারের এ বিক্ষোভ হল।
এদিনের বিক্ষোভে যোগ দিয়েছে বয়োঃবৃদ্ধরাও। পুলিশ বিক্ষোভ চলাকালে বেশ কয়েকজনকে আটক করেছে। এর আগে হংকংয়ে গত রোববারের স্থানীয় পরিষদ নির্বাচনে গণতন্ত্রপন্থি প্রার্থীদের বিশাল জয়ের পর এক সপ্তাহ হংকংয়ের পরিস্থিতি মোটামুটি শান্ত ছিল। তবে বিক্ষোভকারীরা সরকার-বিরোধী প্রতিবাদ-বিক্ষোভ চালিয়ে যাওয়ারই অঙ্গীকার করেছে।
‘আন্দোলন কেন শুরু হল তা কখনো ভুলবে না,’ ‘এখন বিপ্লবের সময়’ লেখা পোস্টার নিয়ে বিক্ষোভকারীরা রোববার কয়েকটি প্রধান সড়ক দখল করে বিক্ষোভ করেছে। আশেপাশের রাস্তাগুলোতে তরুণ অধিবাসী এবং শিশুদের নিয়ে বিভিন্ন পরিবারকেও বিক্ষোভ করতে দেখা গেছে। চীনের মূলভূখÐে বন্দি প্রত্যর্পণ নিয়ে একটি প্রস্তাবিত বিল বাতিলের দাবিতে গত জুন মাস থেকে হংকংয়ে এ আন্দোলন-বিক্ষোভ শুরু হয়। টানা বিক্ষোভের মুখে ওই বিল প্রথমে ‘মৃত’ এবং পরে বাতিল ঘোষণা করা হলেও আন্দোলন থামেনি। বরং গণতন্ত্রপন্থি আন্দোলনকারীরা আত্মনিয়ন্ত্রণাধিকারের আরো অনেক দাবি নিয়ে বিক্ষোভ চালিয়ে যাচ্ছে। বিডিনিউজহংকংয়ে নতুন করে বিক্ষোভ, পুলিশের টিয়ার গ্যাস

এক সপ্তাহের তুলনামূলক শান্ত অবস্থার পর ফের সরকার-বিরোধী বিক্ষোভে অশান্ত হয়ে উঠেছে হংকং পরিস্থিতি। রবিবার হংকংয়ের হাজার হাজার বাসিন্দা স্বাধীনতার দাবিতে রাস্তায় নেমে বিক্ষোভ করেছে। ‘আমাদের সময়ের বিপ্লব,’ ‘হংকং মুক্ত কর’ স্লোগানে বিক্ষোভ করে তারা। বিক্ষোভ ছত্রভঙ্গ করতে এদিনও পুলিশ টিয়ার গ্যাস নিক্ষেপ করেছে। সিম সা সুই শপিং এলাকায় এ বিক্ষোভ হয়। হংকংয়ের বিক্ষোভকারীদের প্রতি যুক্তরাষ্ট্রের সমর্থনের জন্য কৃতজ্ঞতা জানাতে শত শত হংকংবাসী মার্কিন কনস্যুলেট অভিমুখে পদযাত্রা করার পর রোববারের এ বিক্ষোভ হল।
এদিনের বিক্ষোভে যোগ দিয়েছে বয়োঃবৃদ্ধরাও। পুলিশ বিক্ষোভ চলাকালে বেশ কয়েকজনকে আটক করেছে। এর আগে হংকংয়ে গত রোববারের স্থানীয় পরিষদ নির্বাচনে গণতন্ত্রপন্থি প্রার্থীদের বিশাল জয়ের পর এক সপ্তাহ হংকংয়ের পরিস্থিতি মোটামুটি শান্ত ছিল। তবে বিক্ষোভকারীরা সরকার-বিরোধী প্রতিবাদ-বিক্ষোভ চালিয়ে যাওয়ারই অঙ্গীকার করেছে।
‘আন্দোলন কেন শুরু হল তা কখনো ভুলবে না,’ ‘এখন বিপ্লবের সময়’ লেখা পোস্টার নিয়ে বিক্ষোভকারীরা রোববার কয়েকটি প্রধান সড়ক দখল করে বিক্ষোভ করেছে। আশেপাশের রাস্তাগুলোতে তরুণ অধিবাসী এবং শিশুদের নিয়ে বিভিন্ন পরিবারকেও বিক্ষোভ করতে দেখা গেছে। চীনের মূলভূখণ্ডে বন্দি প্রত্যর্পণ নিয়ে একটি প্রস্তাবিত বিল বাতিলের দাবিতে গত জুন মাস থেকে হংকংয়ে এ আন্দোলন-বিক্ষোভ শুরু হয়। টানা বিক্ষোভের মুখে ওই বিল প্রথমে ‘মৃত’ এবং পরে বাতিল ঘোষণা করা হলেও আন্দোলন থামেনি। বরং গণতন্ত্রপন্থি আন্দোলনকারীরা আত্মনিয়ন্ত্রণাধিকারের আরো অনেক দাবি নিয়ে বিক্ষোভ চালিয়ে যাচ্ছে। বিডিনিউজহংকংয়ে নতুন করে বিক্ষোভ, পুলিশের টিয়ার গ্যাস

এক সপ্তাহের তুলনামূলক শান্ত অবস্থার পর ফের সরকার-বিরোধী বিক্ষোভে অশান্ত হয়ে উঠেছে হংকং পরিস্থিতি। রবিবার হংকংয়ের হাজার হাজার বাসিন্দা স্বাধীনতার দাবিতে রাস্তায় নেমে বিক্ষোভ করেছে। ‘আমাদের সময়ের বিপ্লব,’ ‘হংকং মুক্ত কর’ সেøাগানে বিক্ষোভ করে তারা। বিক্ষোভ ছত্রভঙ্গ করতে এদিনও পুলিশ টিয়ার গ্যাস নিক্ষেপ করেছে। সিম সা সুই শপিং এলাকায় এ বিক্ষোভ হয়। হংকংয়ের বিক্ষোভকারীদের প্রতি যুক্তরাষ্ট্রের সমর্থনের জন্য কৃতজ্ঞতা জানাতে শত শত হংকংবাসী মার্কিন কনস্যুলেট অভিমুখে পদযাত্রা করার পর রোববারের এ বিক্ষোভ হল।
এদিনের বিক্ষোভে যোগ দিয়েছে বয়োঃবৃদ্ধরাও। পুলিশ বিক্ষোভ চলাকালে বেশ কয়েকজনকে আটক করেছে। এর আগে হংকংয়ে গত রোববারের স্থানীয় পরিষদ নির্বাচনে গণতন্ত্রপন্থি প্রার্থীদের বিশাল জয়ের পর এক সপ্তাহ হংকংয়ের পরিস্থিতি মোটামুটি শান্ত ছিল। তবে বিক্ষোভকারীরা সরকার-বিরোধী প্রতিবাদ-বিক্ষোভ চালিয়ে যাওয়ারই অঙ্গীকার করেছে।
‘আন্দোলন কেন শুরু হল তা কখনো ভুলবে না,’ ‘এখন বিপ্লবের সময়’ লেখা পোস্টার নিয়ে বিক্ষোভকারীরা রোববার কয়েকটি প্রধান সড়ক দখল করে বিক্ষোভ করেছে। আশেপাশের রাস্তাগুলোতে তরুণ অধিবাসী এবং শিশুদের নিয়ে বিভিন্ন পরিবারকেও বিক্ষোভ করতে দেখা গেছে। চীনের মূলভূখণ্ডে বন্দি প্রত্যর্পণ নিয়ে একটি প্রস্তাবিত বিল বাতিলের দাবিতে গত জুন মাস থেকে হংকংয়ে এ আন্দোলন-বিক্ষোভ শুরু হয়। টানা বিক্ষোভের মুখে ওই বিল প্রথমে ‘মৃত’ এবং পরে বাতিল ঘোষণা করা হলেও আন্দোলন থামেনি। বরং গণতন্ত্রপন্থি আন্দোলনকারীরা আত্মনিয়ন্ত্রণাধিকারের আরো অনেক দাবি নিয়ে বিক্ষোভ চালিয়ে যাচ্ছে। বিডিনিউজ