সৌরজগতের কোন গ্রহের তাপমাত্রা কত জেনে নিন

48

তীব্র শীত কিংবা গরমে তাপমাত্রা কত তা অনেকেই জানার চেষ্টা করেন। কিন্তু সৌরজগতের অন্যান্য গ্রহগুলোর তাপমাত্রা সম্পর্কে জানেন? কাঠামো ও সূর্য থেকে দূরত্ব বিবেচনায় সৌরজগতের গ্রহগুলোর মধ্যে তাপমাত্রার পার্থক্য রয়েছে। জেনে নিন সৌরজগতের কোন গ্রহের গড় তাপমাত্রা কত থাকে।
নেপচুন : সৌরজগতের সবচেয়ে শীতল গ্রহ হিসেবে ধরা হয় নেপচুনকে। গ্রহটির গড় তাপমাত্রা মাইনাস ২০০ ডিগ্রি সেলসিয়াস। সৌরজগতের ৮টি গ্রহের মধ্যে এই গ্রহটি সূর্য থেকে সবচেয়ে দূরে (৪.৫০ বিলিয়ন কিলোমিটার) অবস্থিত। সৌরজগতের চতুর্থ বৃহত্তম এই গ্রহটি মূলত একটি বিশাল গ্যাসের দৈত্য। পৃথিবী এবং নেপচুনের মধ্যে বিশাল দূরত্ব থাকায় গ্রহটি এখনো বিজ্ঞানীদের কাছে এক রহস্যের আঁধার।
প্লুটো : ২০০৬ সালের ২৪ আগস্ট প্লুটোকে চিরতরে বাদ দিয়ে দেয়া হল গ্রহের তালিকা থেকে। তারপরও অনেকের আগ্রহ এটির প্রতি। সূর্য থেকে প্রায় ৬০০ কোটি কিলোমিটার দূরে অবস্থিত বরফ এবং শিলা দিয়ে গঠিত এই বামন গ্রহ। সূর্য থেকে সবচেয়ে দূরে অবস্থিত শীতল এই গ্রহের গড় তাপমাত্রা মাইনাস ২২৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস। প্লুটো যখন সূর্যের নিকটবর্তী হয় তখন বায়ুমÐলের মধ্যে নাইট্রোজেনের কারণে তাপমাত্রা গরম হয়।
মঙ্গল : মানুষ নাকি কিছুদিন পর মঙ্গলগ্রহে বসবাস শুরু করবে। অনেকে এটিকে বলছেন দ্বিতীয় পৃথিবী। এই গ্রহের গড় তাপমাত্রা মাইনাস ৬৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস। মঙ্গলেও পৃথিবীর মতো ভূ-ত্বক রয়েছে। সেখানে রয়েছে পৃথিবীর মতো পাহাড?, উপত্যকা, আগ্নেয়গিরি, মরুভূমি এবং মেরুদেশীয় বরফ। আরো রয়েছে অতি ক্ষীণ বায়ুমÐল। পৃথিবীর মতোই ম্যাগনেটিক ফিল্ড আছে মঙ্গলগ্রহে।
শুক্র : সৌরজগতের সবচেয়ে উত্তপ্ত গ্রহ শুক্র। গ্রহটির তাপমাত্রা ৪৬৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস পর্যন্ত হতে পারে। এই উচ্চ তাপমাত্রার কারণ হচ্ছে, গ্রহটির বায়ুমণ্ডল খুবই ঘন। গরম ঝড়ো বাতাসের গতিবেগ সেখানে ঘণ্টায় ৩৬০ কিলোমিটার। তাই শুক্রের মাটিতে মানববসতি স্থাপন করা তো দূরের কথা, অদূর ভবিষ্যতে এই গ্রহটিতে ঘুরতে যাওয়ার পরিকল্পনাও মোটামুটি কল্পবিজ্ঞানের পাতাতেই আবদ্ধ।
বুধ : দ্বিতীয় উত্তপ্ত গ্রহ হচ্ছে বুধ। গ্রহটির সর্বনিম্ন তাপমাত্রা মাইনাস ৯৩ ডিগ্রি, সর্বোচ্চ ৪২৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস পর্যন্ত হতে পারে। গড় তাপমাত্রা ১৬৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস। বুধের তাপমাত্রায় সরাসরি সূর্যের প্রভাব রয়েছে। তাই বুধের একপাশ প্রায়ই ঝলসানো এবং অপরপার্শ্ব ছায়াময় থাকে। সূত্র : ইন্টারনেট