সৌদি নারীদের জন্য বোরকা বাধ্যতামূলক পোশাক নয়’

44

সৌদি আরবের মুসলিম শরিয়াহ বোর্ডের এক সদস্য জানিয়েছেন, সৌদি নারীদের
জন্য বোরকা বাধ্যতামূলক পোশাক নয়। এক টেলিভিশন অনুষ্ঠানে শেখ আব্দুল্লাহ
আল-মুতলাক বলেন, মুসলিম নারীদের শালীনতার সঙ্গে পোশাক পরিধান করা
উচিত। কিন্তু এর অর্থ নয় তাদেরকে অবশ্যই বোরকা পরতে হবে। ব্রিটিশ বার্তা
সংস্থা রয়টার্স এখবর জানিয়েছে। সৌদি যুবরাজ মুহাম্মদ বিন সালমানের নেতৃত্বে
দেশটিতে বেশি কিছু ধর্মীয় সংস্কার শুরু হয়েছে। সৌদি নারীদের জন্য বোরকা
বাধ্যতামূলক হিসেবে না রাখা এই সংস্কারের ইঙ্গিত হতে পারে। ইতোমধ্যে
সৌদি নারীরা গাড়ি চালানো, স্টেডিয়ামে বসে খেলা দেখার অনুমতি পেয়েছেন।
সৌদি আরবের মুসলিম শরিয়াহ বোর্ডের এক সদস্য জানিয়েছেন, সৌদি নারীদের
জন্য বোরকা বাধ্যতামূলক পোশাক নয়। এক টেলিভিশন অনুষ্ঠানে শেখ আব্দুল্লাহ
আল-মুতলাক বলেন, মুসলিম নারীদের শালীনতার সঙ্গে পোশাক পরিধান করা
উচিত। কিন্তু এর অর্থ নয় তাদেরকে অবশ্যই বোরকা পরতে হবে। ব্রিটিশ বার্তা
সংস্থা রয়টার্স এখবর জানিয়েছে। সৌদি যুবরাজ মুহাম্মদ বিন সালমানের নেতৃত্বে
দেশটিতে বেশি কিছু ধর্মীয় সংস্কার শুরু হয়েছে। সৌদি নারীদের জন্য বোরকা
বাধ্যতামূলক হিসেবে না রাখা এই সংস্কারের ইঙ্গিত হতে পারে। ইতোমধ্যে
সৌদি নারীরা গাড়ি চালানো, স্টেডিয়ামে বসে খেলা দেখার অনুমতি পেয়েছেন।
শুক্রবার প্রচারিত ওই টেলিভিশন অনুষ্ঠানে আল-মুতলাক বলেন, বিশ্বের ৯০
শতাংশ ধার্মিক মুসলিম নারী বোরকা পরেন না। তাই আমাদের বোরকা পরতে
বাধ্য করা উচিত নয়। বোরকা বাধ্যতামূলক না থাকা দেশটির আইনে বড় ধরনের
পরিবর্তনের ইঙ্গিত। এই প্র ম দেশটির শীর্ষ শরিয়াহ বোর্ডের কোনও সদস্য এই
অবস্থান জানালেন। প্রচারিত ওই টেলিভিশন অনুষ্ঠানে আল-মুতলাক বলেন, বিশ্বের ৯০
শতাংশ ধার্মিক মুসলিম নারী বোরকা পরেন না। তাই আমাদের বোরকা পরতে
বাধ্য করা উচিত নয়। বোরকা বাধ্যতামূলক না থাকা দেশটির আইনে বড় ধরনের
পরিবর্তনের ইঙ্গিত। এই প্র ম দেশটির শীর্ষ শরিয়াহ বোর্ডের কোনও সদস্য এই
অবস্থান জানালেন।