সিঙ্গাপুরে আক্রান্ত এক বাংলাদেশির পরিবার পাচ্ছে ১০ হাজার ডলার

39

সিঙ্গাপুরে নভেল করোনাভাইরাসে আক্রান্ত এক বাংলাদেশি শ্রমিকের পরিবারকে ১০ হাজার ডলার আর্থিক সহায়তা দিচ্ছে দেশটির বেসরকারি সংস্থা মাইগ্রেন্ট ওয়ার্কার্স সেন্টার (এমডবিøউসি)। মোবাইল ব্যাংকিং সেবা ব্যবহার করে এই আর্থিক সহায়তা পাঠানো হবে।
সিঙ্গাপুরের দ্য স্ট্রেইটস টাইমস জানিয়েছে, অভিবাসী শ্রমিকদের সুরক্ষায় কাজ করা এমডবিøউসির সঙ্গে মিলে ৩৯ বছর বয়সী ওই শ্রমিকের নিয়োগদাতা প্রতিষ্ঠান ওয়াই-কে ইনোভেশন্স এবং লিও ডরমেটরি পরিচালনাকারী মিনি এনভায়রণমেন্ট সার্ভিসেস এই আর্থিক সহায়তা দিচ্ছে।
গত ৮ ফেব্রূয়ারি শরীরে করোনাভাইরাসের অস্তিত্ব ধরার পর থেকে ওই বাংলাদেশি শ্রমিককে কাকি বুকিতের লিও ডরমেটরিতে রেখে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। সিঙ্গাপুরে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ৪২তম ব্যক্তি ওই শ্রমিক।
‘যেহেতু তিনি একমাত্র উপাজর্নক্ষম ব্যক্তি, তাই তার পরিবার এখন একটি সঙ্কটময় সময় পার করছে’, আর্থিক সহায়তা দেওয়ার কারণ ব্যাখ্যায় গতকাল সোমবার এক ফেসবুক পোস্টে জানিয়েছে এমডবিøউসি। ওই শ্রমিককে হাসপাতালে ভর্তির পরপরই নিয়োগদাতা প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে এমডবিøউসির পক্ষ থেকে তার নিকটাত্মীয়র সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়। তার শারীরিক অবস্থা সম্পর্কে পরিবারকে নিয়মিত অবহিতও করা হচ্ছে।
‘নিয়মিত আপডেট জানানোর ফলে তারা (শ্রমিকের পরিবার) এ সময়ে কিছুটা হলেও স্বস্তি পাবে’, বলা হয় এমডব্লিউসির ফেসবুক বার্তায়। খবর বিডিনিউজের
আক্রান্ত শ্রমিকের পরিবার যাতে জরুরি কেনাকাটা এবং দৈনন্দিন খরচ চালাতে পারে সেজন্যই এই ১০ হাজার ডলার সহায়তা দেওয়া হচ্ছে বলে জানিয়েছে সংস্থাটি। এছাড়া ওই শ্রমিকসহ বাংলাদেশি আরও চারজনের হাসপাতালে চিকিৎসার খরচ মেটাচ্ছে সিঙ্গাপুর সরকার। করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে যেসব শ্রমিক হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন, তাদের জন্য আর্থিক সহায়তার আরও প্রস্তাব পাওয়ার কথাও জানিয়েছে এমডব্লিউসি। খবর বিডিনিউজের
অভিবাসী শ্রমিকদের কল্যাণে ব্যবস্থা নেওয়ার পাশাপাশি তাদেরকে প্রয়োজনীয় সহায়তা দিয়ে যাওয়ার আশ্বাসও দিয়েছে বেসরকারি সংস্থাটি। পরিস্থিতি আরও খারাপের দিকে গেলে এমডব্লিউসির পক্ষ থেকে জনগণের সহায়তায় একটি তহবিলও গঠন করা হতে পারে বলে জানিয়েছে সংস্থাটি।
আগ্রহীরা ৫৭৯, সেরানগুন রোডে অবস্থিত এমডব্লিউসি সহায়তা কেন্দ্রের ‘মাইগ্রেন্ট ওয়ার্কার্স অ্যাসিসটেন্ট ফান্ড’ এ নগদ অথবা চেকের মাধ্যমে অভিবাসী শ্রমিকদের সহায়তায় আর্থিক অনুদান দিতে পারবেন।