সমাজসেবী মিনতী রানী দাশের মৃত্যুবার্ষিকীর সভা

22

চটগ্রাম সাহিত্য পাঠচক্রের সভাপতি ও কধুরখীল বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক বাবুল কান্তি দাশের প্রয়াত মাতা সমাজসেবী মিনুদাশের ১০ মৃত্যুবার্ষিকী স্মরণে আলেচনা সভা এবং শিক্ষাবৃত্তি প্রদান অনুষ্ঠানে সংগঠনের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শবনম ফেরদৌসীর সভাপতিত্বে গত ১৬ সেপ্টেম্বর নগরীর কদম মোবারক স্কুলে অনুষ্ঠিত হয়েছে। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন অধ্যক্ষ বিজয় লক্ষী দেবী। প্রধান আলোচক ছিলেন শিক্ষাবিদ ও লেখক অধ্যাপক শামসুদ্দীন শিশির। সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক আসিফ ইকবালের পরিচালনায় এতে বিশেষ অতিথি ছিলেন চট্টগ্রাম উত্তর জেলা জাসদের সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা ভানুরঞ্জণ চক্রবর্তী, নাট্যজন সজল চৌধুরী, প্রাবন্ধিক ছিদ্দিকুল ইসলাম, নারীনেত্রী নব্যুয়ত আরা সিদ্দিকী রকি, শিক্ষক বিজয় শংকর চৌধুরী, প্রয়াতের সন্তান বাবুল কান্তি দাশ, সংগঠক এম. নুরুল হুদা চৌধুরী, সৈয়দা শাহানা আরা বেগম, মো. হেলাল উদ্দীন, সংগীতশিল্পী নারায়ন দাশ, মাওলানা কে.এইচ.এম. তারেক, ছড়াকার ইমরান ফারুকী, জান্নাতুল মাওয়া কলি, সুমন চৌধুরী, মো. মিনহাজ প্রমুখ। সভায় প্রধান অতিথি তার বক্তব্যে বলেন, মা শুধু সন্তানের মা নয়। একজন মা পৃথিবীর সকল সন্তানের মা হয়ে উঠাতেই শ্রেষ্ঠত্ব। মায়ের আবেদন কখনো শেষ হওয়ার নয়। মায়ের মমতা, স্নেহ, ভালেবাসা ও বিশ্বাসের মর্যাদা কখনো ভুলবার নয়। তিনি বলেন প্রয়াত মিনু দাশ একজন আদর্শিক ও সফল মাতা। কারণ তিনি তার একজন শিক্ষক ছেলে রেখে গেছেন যে সন্তান মানুষ গড়ার কারিগর হিসেবে ভুমিকা রেখে যাচ্ছে। এছাড়া প্রয়াত মিনু দাশ আজীবন ধাত্রীমাতা হিসেবে অসংখ্যা সন্তানের পৃথিবীতে ভুমিষ্ঠ হওয়াতে ভুমিকা রেখেছেন। মিনু দাশ একজন সত্যিকার মা হিসেবে অনেক মায়ের মুখে হাসি ফুটিয়েছেন। সমাজসেবা ও মানুষের কল্যাণের জন্য প্রয়াত মিনু দাশ আমাদের মাঝে বেঁচে থাকবে। প্রধান বক্তা বলেন, মাতো মা। মায়ের মত শ্রেষ্ঠ বন্ধু, অভিভাবক আর পৃথিবীতে নেই। মাকে বৃদ্ধাশ্রমে নয় মায়ের প্রতি সন্তান যেন সঠিক ও যথাযথ দায়িত্ব পালন করে এ হোক আমাদের সকলের শপথ। মাকে সবসময় সম্মান করা আমাদের প্রতিদিনকার নৈতিক দায়িত্ব। সভা শেষ একজন শিক্ষার্থীর মাঝে প্রয়াত মিনু দাশ স্মৃতি শিক্ষাবৃত্তির সনদ ও নগদ অর্থ প্রদান করা হয়। বিজ্ঞপ্তি