সবজি-মাংস স্থিতিশীল মাছের দাম চড়া

নিজস্ব প্রতিবেদক

23

বাজারে সবজি ও মাংসের দাম স্থিতিশীল থাকলেও মাছের দাম চড়া। তবে বাজারে শীতকালীন আগাম সবজির দাম খুব বেশি। ব্যবসায়ীরা বলছেন, গত কয়েক সপ্তাহ ধরে বাজারে সামুদ্রিক মাছের সরবরাহ কম থাকার কারণে মাছের দাম বেড়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার নগরীর নাছিরাবাদ দুই নম্বর গেট কর্ণফুলী মার্কেটে মাছ-মাংস-সবজির দামের এ চিত্র দেখা যায়।
কর্ণফুলী মার্কেটের ব্যবসায়ীদের সাথে কথা বলে জানা যায়, বাজারে সবজির দাম স্থিতিশীল রয়েছে। তবে কুমিল্লা কিংবা দেশের অন্যান্য অঞ্চল থেকে আসার সবজির চেয়ে দোহাজারির সবজির দাম কিছুটা বেশি। দোহাজারি জাতের সবজির মানও অন্য এলাকার চেয়ে ভাল। বাজারে দেশি আলু কেজি ৪৫ টাকা, ডায়মন্ড জাতের আলু ২৫ টাকা, কাকরল ৪০ টাকা, পটল ৪০ টাকা, ঢেঁড়স ৫০-৬০ টাকা, বরবটি ৬০ টাকা, ঝিঙে ৪০ টাকা, চিচিঙ্গা ৩০-৩৫ টাকা, ধুন্দল ৫০ টাকা, মিষ্টি কুমড়া ২৫-৩০ টাকা, কাঁচা মিষ্টি কুমড়া ৩০-৪০ টাকা, তিতকরলা ৫০ টাকা, কচুর লতি ৪০ টাকা, কচুর চড়া ৫০ টাকা, শসা ৩০ টাকা, চাল কুমড়া (ঝালি) ২৫-৩০ টাকা, পেঁপে ৩০ টাকা দরে বিক্রি হয়েছে। বাজারে আসা শীতের আগাম সবজি শিম কেজি ২০০ টাকা, বাধা কপি ৮০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে। তাছাড়া টমেটো ৮০-৯০ টাকা এবং কাঁচা মরিচ কেজি ১২০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।
বাজারের সবজি বিক্রেতা আবদুল করিম বলেন, ‘সবজির দাম স্বাভাবিক রয়েছে। গত সপ্তাহের চেয়ে কয়েকটি সবজির দাম ৪-৫ টাকা বাড়লেও কয়েকটির কমেছে।’
আরেক সবজি বিক্রেতা মো. টিপু বলেন, ‘বাজারের অন্য সবজির চেয়ে দোহাজারি জাতের সবজির দাম কিছুটা বেশি। দাম বেশি হলেও মানে ভাল ও এসব সবজি বেশ সতেজ। তাই এসব সবজির দাম কেজিতে ৫-১০ টাকা বেশি।’ এদিকে গত সপ্তাহের মতো চলতি সপ্তাহেও বাজারে মাছের সরবরাহ কম জানালেন কর্ণফুলী মার্কেটের বিক্রেতারা। তাই দামও কিছুটা বেশি। মাছ বিক্রেতা মো. আলমগীর বলেন, ‘বাজারে সামুদ্রিক মাছ একেবারে কম। সরবরাহ কম থাকার কারণে মাছের দাম বেড়েছে।’ বাজারটিতে রুই মাছ ২২০-২৮০ টাকা, কাতলা ৩০০-৩২০ টাকা, বড় কাতলা (দুই কেজির বেশি ওজনের) কেজি ৪০০ টাকা, বড় শিং মাছ ৭৫০ টাকা, ছোট চিংড়ি ৪৪০-৪৬০ টাকা, বড় সাইজের দেশি বাইলা ৭৫০ টাকা, তেলাপিয়া ১৫০ টাকা, মলা মাছ ৪০০-৪৮০ টাকা এবং কাচকি মাছ বিক্রি হচ্ছে ২০০ টাকা দরে। তবে পানিতে রাখা জ্যান্ত তেলাপিয়া বিক্রি হচ্ছে ১৮০ টাকা কেজি।
বাজারে সামুদ্রিক মাছের মধ্যে ৯০০ গ্রাম থেকে এক কেজি ওজনের ইলিশ বিক্রি হচ্ছে ৯৫০-১০০০ টাকা কেজি। তবে ৫০০-৬০০ গ্রাম ওজনের ইলিশ বিক্রি হচ্ছে ৭০০ টাকা কেজি। দেশি কোরাল ৬৬০ টাকা, বাটা মাছ ৪৫০, পোয়া ২২০ টাকা থেকে সাইজভেদে ৩৬০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে। রূপচান্দা কেজি ৮৫০ টাকা, কালিচান্দা ৫৫০ টাকা, লইট্টা মাছ বিক্রি হচ্ছে ১৪০-১৫০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে। বাজারটিতে বাঘা আইড় মাছ বিক্রি হয়েছে ১২০০ টাকা কেজি দরে।
অন্যদিকে গত সপ্তাহের ন্যায় মাংসের দামও ছিল স্থিতিশীল। তবে ব্রয়লার মুরগির দাম গত সপ্তাহে কমলেও বৃহস্পতিবার কেজিতে ৫ টাকা বেড়েছে। বাজারে ব্রয়লার মুরগি ১৩০ টাকা, সোনালী জাতের মুরগি ২৩০ টাকা, দেশি মুরগি কেজি ৩৯০-৪০০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। তাছাড়া গরুর মাংস (হাড় ছাড়া) কেজি ৬০০ টাকা, খাসীর মাংস ৭৫০ টাকা, ছাগীর মাংস ৬২০-৬৫০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। লেয়ার মুরগীর ডিম (সাদা) প্রতি ডজন ১০২ টাকা, লাল ডিম প্রতি ডজন ১০৫ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।