‘সবচেয়ে বেশি নারী নির্যাতন হচ্ছে খালেদার ওপর’

7

দুর্নীতির মামলায় দন্ডিত হয়ে কারাবন্দি খালেদা জিয়ার ওপর এখন ‘সবচেয়ে বেশি নারী নির্যাতন হচ্ছে’ বলে দাবি করেছেন তার দলের নেত্রী আফরোজা আব্বাস।
গতকাল শনিবার জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে জাতীয়তাবাদী মহিলা দলের উদ্যোগে খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে মানববন্ধনে একথা বলেন তিনি।
মহিলা দলের সভাপতি আফরোজা আব্বাস বলেন, আগে নারী ও শিশুদের উত্ত্যক্ত করা হত, এখন ধর্ষণ, গণধর্ষণ তারপরে হত্যা করা হচ্ছে। আমরা কোন দেশে বসবাস করছি? তিনি বলেন, সবচাইতে বেশি নারী নির্যাতন হচ্ছে আমাদের দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার ওপরে। তাকে বিনা কারণে আটকে রেখেছে। কারণ একটাই- দেশনেত্রীকে আটকে রাখলে নারী নির্যাতন বেশি করে বাড়ানো যাবে, বেশি করে ব্যাংক লুট করা যাবে, ব্যাংক ডাকাতি করা যাবে, দেশে নৈরাজ্য সৃষ্টি করা যাবে, দেশটাকে বিক্রি করা যাবে। খবর বিডিনিউজের
মানববন্ধনে বক্তব্যে বিচার ব্যবস্থার ওপর সরকারের হস্তক্ষেপের অভিযোগ করেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য সেলিমা রহমান। তিনি বলেন, আজকে বাংলাদেশে বিচার বলতে কিছু নাই। আমরা দেখেছি দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার মিথ্যা ভুয়া মামলা, যা জামিনযোগ্য তবুও জামিন হচ্ছে না। তার কারণ আজকে বিচার বিভাগ এই সরকারের হাতে বন্দি।
বরগুনার আয়েশা সিদ্দিকা মিন্নির জামিন না পাওয়ার প্রসঙ্গটি তুলে ধরে সেলিমা রহমান বলেন, আপনারা দেখতে পেয়েছেন যে, মিন্নি তার স্বামীকে বাঁচানোর জন্য সে যুদ্ধ করেছিল সন্ত্রাসী বাহিনীর সঙ্গে। সেই মিন্নিকেও আজকে পরকীয়ার বদনাম দিয়ে জোর করে আটক রেখে তার মাধ্যমে মিথ্যা জবানবন্দি আদায় করে সমস্ত দোষ মিন্নির ওপর চাপানো হচ্ছে।
শিক্ষাঙ্গনে সন্ত্রাস, নারী ও শিশু ধর্ষণ ও নির্যাতনসহ নানা ঘটনায় ‘সরকারের ব্যর্থতার’ কঠোর সমালোচনা করেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির এই সদস্য।