সংসদে বাসন্তি চাকমার বক্তব্য প্রত্যাহারের দাবিতে মানববন্ধন

62

রাঙামাটি : ৩৩৩নং সংরক্ষিত মহিলা সংসদীয় আসনে আওয়ামী লীগের মনোনীত সদস্য বাসন্তি চাকমার সংসদে বক্তব্য প্রতিবাদ ও তা প্রত্যাহারের দাবিতে রাঙামাটিতে মানববন্ধন করেছে সচেতন পার্বত্যবাসী নামে একটি সংগঠন। বাসন্তি চাকমা গত ২৬ ফেব্রæয়ারি সংসদে বক্তব্য রাখেন। এর প্রতিবাদ ও বক্তব্যটি প্রত্যাহারের দাবিতে রবিবার সকালে রাঙামাটি জেলা প্রশাসক কার্যালয়ে আয়োজিত মানবন্ধনে বলা হয় বাসন্তি চাকমার বক্তব্যটি বাংলাদেশ সেনাবাহিনী ও পার্বত্য চট্টগ্রামে বসবাসরত বাঙালিদের হেয় করা হয়েছে এবং জনমনে ক্ষোভ সৃষ্টি হয়েছে। এক্ষোভ প্রশমিত করতে সংসদের কার্যবিবরণী থেকে এক্সপাঞ্জ করার দাবি করা হয়। তা না হলে পার্বত্য চট্টগ্রামে কঠোর আন্দোলনের হুশিয়ারী দেন বক্তারা। মানববন্ধন শেষে জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রীর কাছে স্মারকলিপি দেওয়া হয়। পার্বত্য অধিকার ফোরামের রাঙামাটি জেলার প্রধান সমন্বয়ক হাবিবুর রহমান হাবিবের পরিচালনায় আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন সচেতন পার্বত্যবাসীর আহবায়ক জাহাঙ্গীর আলম মুন্না, সম অধিকার আন্দোলনের সাবেক নেতা কাজী মো. জালোয়া, পার্বত্য চট্টগ্রাম সম-অধিকার আন্দোলনের সাবেক সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কামাল, জুরাছড়ি উপজেলার আওয়ামী লীগের চেয়ারম্যান প্রার্থী রূপ কুমার চাকমা, পার্বত্য নাগরিক অধিকারের সাবেক জেলা সেক্রেটারি মো.জামাল উদ্দিন মাস্টার, আওয়ামী লীগ বিলাইছড়ি উপজেলা সহ-সভাপতি রাসেল মারমা দেওয়ান, বাঙালি ছাত্র পরিষদের রাঙামাটি জেলা সভাপতি জাহাঙ্গীর আলম উপস্থিত ছিলেন। বক্তারা আরো বলেন, তিন পার্বত্য জেলার সংরক্ষিত মহিলা সংসদ সদস্য বাসন্তি চাকমা মহান সংসদ অধিবেশন চলা মকালিন সময়ে যে কুরুচিপূর্ণ উদ্দেশ্য প্রণোদিত মিথ্যা ও ষড়যন্ত্রমূলক বক্তব্য দিয়ে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী এবং পার্বত্য চট্টগ্রামে বসবাসরত পাহাড়ি বাঙালি সবাইকে কলংকিত করেছেন। তার এ বক্তব্যে প্রমানিত হলো যে বাসন্তি চাকমা একজন সম্প্রদায়িক জেএসএস পন্থী লোক।
আলীকদম : সেনাবাহিনী ও পার্বত্য চট্টগ্রামের জনসাধারণকে জড়িয়ে জাতীয় সংসদ অধিবেশনে সংরক্ষিত আসনের নারী সংসদ সদস্য বাসন্তী চাকমার বক্তব্যের প্রতিবাদ জানিয়ে বান্দরবানের আলীকদম উপজেলার মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে। গত রবিবার পাহাড়ি বাঙ্গালী সম্মিলিত ঐক্য পরিষদের আয়োজনে আলীকদম উপজেলার প্রেসক্লাবের সামনে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। এদিকে মানববন্ধনে বক্তারা অভিযোগ করে বলেন, সংসদ সদস্য বাসন্তী চাকমা সংসদে দাঁড়িয়ে সেনাবাহিনী ও বাঙ্গালী জাতিগোষ্ঠীর বিরুদ্ধে গণহত্যার যে অভিযোগ উত্থাপন করেছেন তা মিথ্যা ও পাহাড়ি সন্ত্রাসী গোষ্ঠীর এজেন্ডা বাস্তবায়নের অংশ। দেশের স্বাধীনতা ও সার্বভৌমত্বে আঘাত করে বাসন্তী চাকমা শপথের লঙ্ঘন করায় জাতীয় সংসদে দেওয়া বক্তব্যের জন্য অবিলম্বে ক্ষমা প্রার্থনা ও পদত্যাগ না করলে পার্বত্য এলাকায় কঠোর আন্দোলন দেয়ায় ঘোষণা দেন। মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন পাহাড়ি বাঙ্গালী সম্মিলিত ঐক্য পরিষদের নেতা ইয়ং লক ¤্রাে, আবুল কালাম, চৌক্ষং ইউপি চেয়ারম্যান মো. ফেরদৌসুর রহমান প্রমুখ।