শীতের রোদে হালকা পোশাক

13

পুরোদমে শীত চলছে। নগরীতে ভোরে কাজে বের হলে কিংবা রাতে ঘরে ফেরার সময় বেশ ঠান্ডা অনুভূত হয়। এমন হালকা শীতে না ভারী পোশাক পরা যায়, না বেছে নেওয়া যায় সাধারণ পোশাক। হালকা শীত ফ্যাশনের জন্য দারুণ উপযোগী। চমৎকার সব স্টাইলিশ হালকা পোশাকের ওপর ভরসা করতে পারেন অনায়াসে।
চট্টগ্রামে নামিদাবি মার্কেট কিংবা ফুটপাতে ঘুরলেই দেখা মিলবে হালকা জিন্স বা গ্যাবাডিনে তৈরি জ্যাকেট। হালকা শীতে এগুলো বেশ মানানসই লাগবে। এ ছাড়া পাতলা উলের সোয়েটার কিংবা ফুল হাতা টি-শার্টও চলে ব্যবহারও করতে পারেন।
শীতে জ্যাকেট কিংবা সোয়েটারের সঙ্গে নানা স্টাইলের জিন্সের চলটাই বেশি। এটা ফর্মাল প্যান্টের সঙ্গেও মানাবে। ফুল শার্টের ভেতরে একটি টি-শার্ট পরে নিতেও পারেন।
সালোয়ার কামিজ পরা তরুণীদের জন্য আছে লং জ্যাকেট, পঞ্চ। ফুলহাতা উজ্জ্বল রঙের লম্বা পাঞ্জাবিও আছে। যা চুড়িদার পায়জামার সঙ্গে পরে তার উপর একটা শাল জড়িয়ে নিলে ফ্যাশনও হবে, আবার আরামদায়কও হবে।
এ যুগের তরুণীরা পছন্দ করছে মোটা কাপড়ের টপস, লেগিংস আর বাহারি ডিজাইনের কার্ডিগেন। শাড়ির ক্ষেত্রে ফুলস্তিভ ব্লাউজ আর মিলিয়ে শাল পরে হয়ে উঠতে পারেন অনন্য। টি শার্ট বা শার্ট পরলে উপরে পরতে পারেন হাতা কাটা সোয়েটার অথবা কোটি।
এবার শীতে আঁটসাঁট নয় বরং ঢিলেঢালা পোশাকই পরতে আগ্রহী তরুণ আর তরুণীরা। সোজা কাটের পোশাকের সঙ্গে বেছে নিতে পারেন হাঁটু পর্যন্ত লম্বা ব্লেজার।
জ্যাকেট আর ব্লেজারের সংমশ্রিণে তৈরি নতুন ধরনের শীতের পোশাক উঠে আসছে তরুণদের পছন্দের তালিকায়। অফিসের প্রয়োজনে ব্লেজার পরতে পারেন। তবে আগের মতো আর সাদা, কালো বা ছাই রঙের বেøজার নয়। এবার বেছে নিতে পারেন গাঢ় মেরুন, কালো হলুদের মিশ্রণ, বেগুনি, পার্পেল রঙের ব্লেজার। এ ছাড়া হুডি জ্যাকেটও ধরে রাখছে হাল ফ্যাশনের আবেদন। আর মাফলার তো আছেই।
ছেলে-মেয়ে সবার পছন্দের র্শীষে উঠে এসেছে রঙিন মাফলার।
নারীরা বিভিন্ন রঙয়ের শাড়ির সঙ্গে গয়না কিংবা গয়না না পরে কেবলমাত্র স্কার্ফ ব্যবহার করতে পারেন। স্কার্ফ এমন একটা ফ্যাশন অনুসঙ্গ, যা কি না শীত কিংবা গ্রীষ্ম যে কোনো ঋতুতে যে কোনো পোষাককেই আকর্ষণীয় করে তোলে। সাদা টপ আর প্লেইন জিন্সের সঙ্গে একটা স্কার্ফ জড়িয়ে নিলেই ভীষণ মার্জিত আর স্টাইলিশ দেখাবে।
এটাই স্কার্ফ ব্যবহারের সুবিধা।