শিশুদের জন্য কণার উদ্যোগে ‘প্লে হাউজ’

42

প্রায় সবাই জানেন, গেল এপ্রিলে বিয়েবন্ধনে আবদ্ধ হলেন দিলশাদ নাহার কণা। না, ৮ মাসের মাথায় ‘নতুন অতিথি’ টাইপের কোনও সুখবর এখনও মুখফুটে জানাননি ভার্সেটাইল এই কণ্ঠশিল্পী। তবে যেটুকু জানিয়েছেন সেটিও সন্তান কিংবা শিশুকেন্দ্রিক! এই শহরে শিশুদের জন্য খেলার পার্ক কিংবা মাঠের বড্ড অভাব। বিয়ের পরে নয়, এ বিষয়টি অনেক বছর ধরেই কণাকে ভাবিয়েছে।
বিশেষ করে বোন-ভাইয়ের সন্তানদের নিয়ে ঘুরতে বেরুলেই এই সংকট পীড়া দেয় কণাকে। শিশুদের মুখে হাসি ফোটানোর জন্য ছোট্ট প্লে-জোন নির্ভর খাবারের দোকানে কাটাতে হয় দীর্ঘ সময়। মূলত এসব তিক্ত অভিজ্ঞতা থেকে এবার নিজেই উদ্যোগ নিলেন শিশুদের জন্য একটি খেলাঘর তৈরির।
মিডিয়ার বাইরের ক’জন সমমনা বন্ধুর সঙ্গে মিরপুর ডিওএইচএস শপিং কমপ্লেক্সের ১১ তলায় এটি গড়ে তুলেছেন। নাম রেখেছেন ‘প্লে হাউজ’। এগুলো কথার কথা নয়! পুরোটাই প্রস্তুত। সাত হাজার স্কয়ারফিটের এই খেলাঘরের উদ্বোধন হয় ২০ ডিসেম্বর। কণা জানালেন, বেশ কয়েকজন দামি তারকার উপস্থিতিতে শুক্রবার বেলা ৪টার দিকে এটির আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন হচ্ছে। পুরো প্রজেক্ট প্রসঙ্গে কণা বললেন, ‘ব্যবসা-বাণিজ্য নয়, এই কাজটি করেছি একেবারে মনের তাগিদ থেকে। আরও ছোট পরিসরে অনেক সহজলভ্য ব্যবসা চাইলে করতে পারতাম। খাবারের দোকান, ফ্যাশন হাউজ ইত্যাদি। যেটা অনেকেই করছেন। কিন্তু আমি করেছি সরাসরি প্লে-জোন। কারণ, আমি জানি এই শহরের বাচ্চাগুলো একটু আনন্দ সময় কাটানোর জন্য কতটা অসহায় হয়ে থাকে। মাঠ নেই, খেলার জায়গা নেই।
বাবা-মায়েরাও অসহায়। আমি তো মনে করি প্রতিটি এলাকায় এমন একটি প্লে-জোন শিশুদের জন্য থাকা দরকার।’ এদিকে শুধু ‘প্লে হাউজ’ নিয়ে বসে নেই কণা। সমানতালে চলছে স্টেজ শো আর রেকর্ডিং সেশন। বলা হয়, অডিও, প্লেব্যাক, জিংগেল আর স্টেজ শো এত মাধ্যমে সমান ব্যস্ততা নারী বিভাগে অন্য কারও নেই।