লালখান বাজারে ভেজাল ওষুধ কারখানার সন্ধান

38

নগরীর লালখান বাজারে ভেজাল ওষুধ তৈরির কারখানার সন্ধান পেয়েছে পুলিশ। গত মঙ্গলবার দিবাগত রাতে খুলশী থানাধীন লালখান বাজার হাই লেভেল রোডের কারখানাটিতে অভিযান চালিয়েছে পুলিশ। এ সময় ভেজাল ওষুধ কারখানার মালিক মো. সাইদুল ইসলামকে (৩৮) গ্রেপ্তার করে নগর গোয়েন্দা পুলিশ। সাইদুল শরিয়তপুর জেলার নুরিয়া থানাধীন নওগাঁও গ্রামের শেখ বাড়ির আবুল হোসেন শেখের ছেলে। সাইদুল লালখান বাজার পশ্চিম হাইলেভেল রোডস্থ তাহের সাহেবের বিল্ডিংয়ের নিচ তলায় ভাড়া থাকতেন। সাইদুলের বিরুদ্ধে খুলশী থানায় বিশেষ ক্ষমতা আইনে মামলা হয়েছে।পুলিশের প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে গ্রেফতার হওয়া সাইদুল জানিয়েছেন, চীন থেকে বিভিন্ন ধরনের খোলা ওষুধ এনে আন্দরকিল্লা থেকে লেবেল ছাপিয়ে, কৌটা ভর্তি করে এগুলো বোতলজাত করতেন।গোয়েন্দা পুলিশের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (কাউন্টার টেরোরিজম) পলাশ কান্তি নাথ জানান, ‘এক্যুয়ার ফার্মা’ নামে একটি ভুয়া প্রতিষ্ঠানের নামে সাইদুল ওষুধগুলো বাজারজাত করছিলেন। প্রায় দুই বছর ধরে তিনি এভাবে ভেজাল ওষুধ বিক্রি করছেন। সাইদুল আগে একটি ওষুধ কোম্পানির এমআর (মার্কেটিং রিপ্রেজেনটেটিভ) হিসেবে কাজ করতেন। পরে দেশের বাইরে থেকে বিভিন্ন ধরনের খোলা ওষুধ কিনে এনে দেশে প্যাকেটজাত করে বিক্রির ব্যবসা শুরু করেন’।এডিসি পলাশ কান্তি নাথ আরো জানান, ‘সাইদুল ওষুধগুলো বোতলজাত করে নামি-দামি ওষুধের লেবেল লাগিয়ে বিভিন্ন দোকানে বেশি দামে বিক্রি করতেন। পাশাপাশি চিকিৎসকদেরকে তার ওষুধ ব্যবস্থাপত্রে লেখার জন্য প্রলুব্ধ করতেন’।