রূপের রানী শরৎ

শচীন্দ্র নাথ গাইন

18

শিউলি ঝরা শরৎ এসে হাতছানিতে ডাকে
সবুজ শ্যামল রং ছড়িয়ে স্বপ্ন শুধুই আঁকে।
রোদ ঝলমল সকাল আসে পাখির গানে গানে,
স্নিগ্ধ চাঁদের জ্যোছনা হেসে মনকে কেবল টানে।

আকাশ জুড়ে খÐ মেঘে চলতে থাকে ভেসে,
যায় হারিয়ে পাখনা মেলে কোন সে নিরুদ্দেশে।
নদীর দু’পাড় সাজিয়ে রাখে দুধসাদা কাশফুলে,
মৃদু হাওয়ায় উঁচিয়ে মাথা খেলতে থাকে দুলে।

ভোরের শিশির দুর্বাঘাসে লুকিয়ে রাখে মুখ,
মাকড়জালে জড়িয়ে খোঁজে কি অনাবিল সুখ!
শান্ত ঝিলের স্বচ্ছ জলে শাপলা যখন ফোটে,
মৌমাছিরা মধুর লোভে গুনগুনিয়ে জোটে।

কাজল বরণ আমন ধানে দোদুল দোলায় কেশ,
সজীবতার কোমল ছোঁয়ার মিষ্টিমাখা বেশ।
মোহনীয় রূপের আধার শরৎ ঋতুর রানী,
লজ্জাবতী লতার মতো ভীষণ অভিমানী।