রামুতে মাদ্রাসায় হামলা, অধ্যক্ষসহ ৪ শিক্ষক আহত

রামু প্রতিনিধি

27

রামুর গর্জনিয়া ইসলামিয়া আলিম মাদ্রাসায় হামলার ঘটনায় প্রতিষ্ঠানটির অধ্যক্ষসহ ৪ শিক্ষক আহত হয়েছেন। গতকাল শনিবার সকাল দশটার দিকে এ ঘটনা ঘটে। আহত শিক্ষকরা হলেন-অধ্যক্ষ মাওলানা আবদুল হামিদ, সহকারি মাওলানা মোহাম্মদ আইয়ুব, সহকারি শিক্ষক রাজিয়া আকতার ও বাংলা বিভাগের প্রভাষক রেজাউল করিম। পুলিশ ঘটনাস্থলে গেলেও জড়িত কাউকে আটক করা যায়নি।
আহত অধ্যক্ষ আবদুল হামিদ জানান, মাদরাসার চাকরিচ্যুত সাবেক অধ্যক্ষ ও তার ভাইসহ মাদ্রাসা কমিটির সাবেক সভাপতির নেতৃত্বে তাদের পরিবারের সদস্য
এবং ৩০-৪০ জন ভাড়াটে পরিকল্পিতভাবে এ হামলা চালিয়েছে। হামলাকারীরা শ্রেণিকক্ষে পাঠদান শুরুর মুহুর্তে দা, লাটি-সোটা নিয়ে প্রবেশ করে। একপর্যায়ে মাওলানা মোহাম্মদ আইয়ুবকে দা দিয়ে কুপিয়ে হত্যার চেষ্টা চালালে অপর শিক্ষকরা তা প্রতিহত করে। পরে তাকে মারধর করে শিক্ষার্থীদের সামনে মাদ্রাসা থেকে তাড়িয়ে দেয়। হামলাকারীদের একাংশ ওই সময় মাদ্রাসার সহকারি শিক্ষক রাজিয়া আকতার, রেজাউল করিমকে অফিস কক্ষে বন্দি করে রাখে এবং বিভিন্ন শ্রেণি কক্ষে শিক্ষার্থীদের অবরুদ্ধ করে রাখে। সহকারি শিক্ষক রাজিয়া আকতার ও রেজাউল করিম জানান, হামলাকারীরা তাদের মারধরের চেষ্টা চালিয়ে ব্যর্থ হয়ে অফিস কক্ষে বন্দি করে রাখে। এসময় মাদরাসার অধ্যক্ষ স্থানীয় পুলিশ প্রশাসনকে বিষয়টি অবহিত করলেও পুলিশ এগিয়ে আসেনি। পরে কক্সবাজারের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রুহুল কুদ্দুস তালুকদারকে জানানো হলে গর্জনিয়া ফাঁড়ির পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।
অধ্যক্ষ আবদুল হামিদ জানিয়েছেন, মারধরে আহত শিক্ষকরা চিকিৎসাধীন রয়েছেন। এ ঘটনায় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও পুলিশের উর্দ্ধতন কর্মকর্তাদের সাথে দেখা করে প্রয়োজনীয় আইনী ব্যবস্থা নেবো। হামলাকারীরা এলাকার প্রভাবশালী। এ ঘটনার পর থেকে তারা প্রাণনাশের হুমকী দিচ্ছে।