রাজনীতিতে প্রেম দেখানোর সুযোগ নেই : কাদের

পূর্বদেশ ডেস্ক

27

একাদশ সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে নির্বাচনকালীন সরকার গঠন প্রশ্নে বিএনপির প্রতি ‘প্রেম বা করুণা’ দেখানোর কোনো সুযোগ নেই বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। নির্বাচনকালীন সরকার প্রসঙ্গে বিএনপি নেতা মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের অভিযোগের জবাবে গতকাল শুক্রবার সেতুমন্ত্রী কাদেরের এমন মন্তব্য আসে।
ওবায়দুল কাদের অক্টোবরে নির্বাচনকালীন সরকার গঠনের সম্ভাবনার কথা বলার পর গত বৃহস্পতিবার এক সভায় বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল বলেন, বিএনপিকে বাদ দিয়ে একাদশ সংসদ নির্বাচনের পরিকল্পনা থেকেই আওয়ামী লীগ ‘একতরফাভাবে’ নির্বাচনকালীন সরকার গঠনের কথা বলছে। শুক্রবার ধানমন্ডিতে আওয়ামী লীগ সভানেত্রীর রাজনৈতিক কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে এসে এ বিষয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের মুখোমুখি হন ওবায়দুল কাদের। খবর বিডিনিউজের
সাংবাদিকরা তার কাছে জানতে চান- এবার নির্বাচনকালীন সরকার গঠনে সংসদের বাইরে থাকা বিএনপির অংশগ্রহণের কোনো সুযোগ থাকছে কিনা। জবাবে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘বিএনপি কি চায় বিএনপিও জানে না। আমাদের একটা সু-নির্দিষ্ট লক্ষ্য আছে। আমরা কি চাই সেটা বলতে আমাদের কোনো সমস্য নেই। দেশের সংবিধানের যে অরবিট আছে, এই সাংবিধানিক অরবিটের মধ্যে থেকে সরকার হিসেবে, রাজনৈতিক দল হিসেবে দায়িত্ব পালন করতে চাই আমরা। আর রাজনীতিতে ভালোবাসার কোনো স্থান নেই। রাজনীতি হচ্ছে হিসেবের অংক। হিসেবের অংকে করুণা করা, ভালোবাসা দেওয়া, প্রেম করার কোনো সুযোগ নেই’।
বিএনপি যে ‘নির্বাচনকালীন নিরপেক্ষ সরকারের’ দাবি জানিয়ে আসছে, সে বিষয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নে কাদের বলেন ,‘নিরপেক্ষতা বলতে কি বোঝাতে চাইছে? কারা নিরপেক্ষ? নিরপেক্ষতার সংজ্ঞা বিএনপির কাছে আমি জানতে চাই’। এই আওয়ামী লীগ নেতা বলেন, ‘বিএনপির নিরপেক্ষতা হলো তাদের দলের লোকজন। আর বাকি সবাই হচ্ছে পক্ষপাতদুষ্ট’। বিএনপির রাজনৈতিক অবস্থান নিয়ে প্রশ্ন তুলে কাদের বলেন, ‘তাদের কোন কথা সঠিক? তারা একদিকে বলে নির্বাচনে যাবে, আরেক দিকে বলে আন্দোলনেরও প্রস্তুতি নিচ্ছে। তারা আসলে কোনটা চায়? তাদের কোনো বিষয়ই স্পষ্ট নয়’।
নির্বাচনের আগে বিএনপির সঙ্গে সংলাপের কোনো সম্ভাবনা আছে কি না- এ প্রশ্নে কাদের বলেন, ‘কোনো প্রয়োজন তো দেখছি না। গতবার তারা সেই ট্রেন মিস করেছে। গণভবনে প্রধানমন্ত্রী ডেকেছেন। বেগম জিয়ার প্রত্যাখ্যানের ভাষাটা এখনো কানে বাজে। কি অশালীন অশ্রাব্য ভাষা সাবেক প্রধানমন্ত্রীর মুখে!’ আরেক প্রশ্নের জবাবে কাদের বলেন, নির্বাচন ‘বানচালের’ চেষ্টা হতে পারে- এমন আশঙ্কা আছেই। তবে আওয়ামী লীগ এবার অনেক আত্মবিশ্বাসী। এবার আর জ্বালাওপোড়াও করে কেউ ‘পার পাবে না’। বিএনপি নেতাদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, ‘কেউ যদি ২০০১ সালের রঙ্গিন খোয়াব দেখতে চান, সে রঙ্গিন খোয়াব আর সফল হবে না’।
অন্যদের মধ্যে আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল আলম হানিফ, জাহাঙ্গীর কবির নানক, আবদুর রহমান, সাংগঠনিক সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম, খালিদ মাহমুদ চৌধুরী, এনামুল হক শামীম, দপ্তর সম্পাদক আবদুস সোবহান গোলাপ, ত্রাণ ও সমাজ কল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক সুজিত রায় নন্দী, কৃষি ও সমবায় বিষয়ক সম্পাদক ফরিদুন্নাহার লাইলী, বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক দেলোয়ার হোসেন, কেন্দ্রীয় সদস্য এসএম কামাল হোসেন সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন।