গাজা ও চোলাই মদ জব্দ

রাঙ্গুনিয়ায় মাদক সম্রাজ্ঞীসহ ৪২ মামলার ৮ আসামি আটক

রাঙ্গুনিয়া প্রতিনিধি

19

গোয়েন্দা সংস্থা ও স্বরাষ্ট্র মন্ত্রাণালয়ের সমন্বিত তালিকায় রাঙ্গুনিয়ার ৯ জন শীর্ষ মাদক ব্যবসায়ীর মধ্যে অন্যতম এক মাদক সম্রাজ্ঞীসহ ৪২ মামলার ৮ জন পরোয়ানাভুক্ত আসামিকে আটক করেছে পুলিশ। গত ২৭ জুন রাতব্যাপী বিশেষ অভিযানে উপজেলার বিভিন্ন এলাকা থেকে তাদের আটক করা হয়েছে। আটককৃতদের মধ্যে মাদক সম্রাজ্ঞী সায়রার কাছে ২শ গ্রাম গাজা, অন্য এক মাদক ব্যবসায়ীর কাছে ১০ লিটার চোলাই মদ জব্দ করা হয় ও এক জনের বিরুদ্ধে ১২টি বন আইনে মামলা রয়েছে। গত ২৮ জুন সকালে আটককৃত ৮ আসামিকে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়।
রাঙ্গুনিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ ইমতিয়াজ মোহাম্মদ আহসানুল কাদের ভূইঞা জানান, রাঙ্গুনিয়ায় বিশেষ অভিযানকালে শীর্ষ মাদক সম্রাজ্ঞী উপজেলার চন্দ্রঘোনা-কদমলী ইউনিয়নের নবগ্রাম ফেরীঘাট এলাকার দেলোয়ার হোসেনের স্ত্রী সাহারা বেগমকে (৪৮) আটক করা হয়। এসময় তার কাছ থেকে ২শত গ্রাম গাজা জব্দ করা হয়েছে। তার বিরুদ্ধে ২০০৫ সালে মাদক আইনে মামলা রয়েছে। চট্টগ্রাম পাঁচলাইশ থানার হামজারবাগ এলাকার বিধু ভূষণ বর্ধনের পুত্র কেশব বর্ধনকে (৩৫) শরীরের মধ্যে বিশেষ কায়দায় বেধে রাঙ্গুনিয়ায় চোলাই মদ বিক্রিকালে ১০ লিটার চোলাই মদ সহ গ্রেফতার করা হয়।
এছাড়াও দীর্ঘদিন ধরে পলাতক থাকা ১২টি বন মামলার আসামি রাজানগর ইউনিয়নের ঠান্ডাছড়ি এলাকার আবদুস সোবহানের পুত্র আবদুল কাদেরকে (৪০) আটক করা হয়েছে। গ্রেফতারকৃত অন্য আসামিরা হলেন চন্দ্রঘোনা হাজী পাড়া এলাকার মোহাম্মদ আলীর পুত্র মোহাম্মদ ইলিয়াছ (৪০), রাঙ্গুনিয়া পৌরসভার মুরাদনগর এলাকার মোহাম্মদ খানের পুত্র মোহাম্মদ লিটন খান (৩০), কোদালা ইউনিয়নের জংগল কোদালা এলাকার মৃত বদিউজ্জামানের মেয়ে কামরুন নাহার (৪৫), পদুয়া ইউনিয়নের পশ্চিম খুরুশিয়া গ্রামের ভূষণ বড়ুয়ার পুত্র রুবেল বড়ুয়া (২৫), তার বড় ভাই সঞ্জিত বড়ুয়া (৩০)। আটককৃত এসব আসামির বিরুদ্ধে মারামারি, চেক জালিয়াতি, ভূমি সংক্রান্ত বিরোধসহ বিভিন্ন মামলা রয়েছে।