রাঙামাটি ও বান্দরবানে পাট দিবসের র‌্যালি ও আলোচনা সভা

রাঙামাটি ও বান্দরবান প্রতিনিধি

32

রাঙামাটি : ‘সোনালী আঁশের সোনার দেশ, জাতির পিতার বাংলাদেশ’ শ্লোগানে রাঙামাটিতে জাতীয় পাট দিবসে র‌্যালি ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয়, পাট অধিদপ্তর ও রাঙামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদের আয়োজনে বুধবার সকালে রাঙামাটি জেলা প্রশাসকের কার্যালয় থেকে শুরু হয়ে শহরের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে রাঙামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদ প্রাঙ্গণে গিয়ে র‌্যালি শেষ হয়ে পরিষদ সভাকক্ষে আলোচনা সভায় মিলিত হয়।
রাঙামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদ সদস্য থোয়াইচিং মারমার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় চট্টগ্রাম পাট অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক ওমর ফারুক তালুকদার, রাঙামাটি কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের জেলা প্রশিক্ষণ কর্মকর্তা কৃষ্ণ প্রসাদ মল্লিক, তুলা উন্নয়ন বোর্ডের প্রধান তুলা উন্নয়ন কর্মকর্তা পরেশ চন্দ্র চাকমা বক্তব্য রাখেন। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন পার্বত্য জেলা পরিষদের জনসংযোগ কর্মকর্তা অরুনেন্দু ত্রিপুরা।
আলোচনা সভায় বক্তরা বলেন, এক সময়ে আমাদের দেশ এই সোনালী আঁশ রপ্তানি করে বৈদেশিক মুদ্রা অর্জন করেছিল, কিন্ত দিন দিন সে ঐতিহ্য হারিয়ে যেতে বসেছে। সে ঐতিহ্য ফিরিয়ে আনতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকার বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে এবং ২০১৬ সালে ৬ মার্চকে জাতীয় পাট দিবস ঘোষণা করেছে। বক্তারা বলেন, সোনালী আঁশ পাটের সুদিন ফিরিয়ে আনতে সরকার চাষিদের পাশে থেকে এর উন্নয়ন এবং বিকাশে সব রকম চেষ্টা করছে। বক্তারা আরও বলেন, পলিথিনের ব্যবহার নিরুৎসাহিত করে জনগণকে পাট জাতীয় পণ্য ব্যবহারে বেশি করে উৎসাহিত করতে হবে। পলিথিন ব্যবহারে পরিবেশের পাশাপাশি মাটির যে ক্ষয়ক্ষতি হয় সে ধারণা জনগণের মাঝে ছড়িয়ে দেওয়ার আহব্বান জানান বক্তারা। এসময় রাঙামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদের প্রশাসনিক কর্মকর্তা মনতোষ চাকমা, ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের সহকারি পরিচালক মো. দিদারুলর আলম, সমবায় অধিদপ্তরের জেলা সমবায় কর্মকর্তা ইউছুফ হাসান চৌধুরীসহ পুলিশ প্রশাসন, আনসার ভিডিপি ও বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান প্রধানগণ উপস্থিত ছিলেন।
বান্দরবান : ‘সোনালী আঁশের সোনার দেশ,জাতির পিতার বাংলাদেশ ’ এ শ্লোগানে ও ‘বহুমুখী পাট পণ্য উৎপাদন ও ব্যবহারেই দেশের সমৃদ্ধি’ এ প্রতিপাদ্য নিয়ে বান্দরবানে জাতীয় পাট দিবস উপলক্ষে র‌্যালি ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। দিবসটি উপলক্ষে বুধবার সকালে বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদ চত্বরে পার্বত্য জেলা পরিষদ এবং পাট অধিদপ্তর, বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয়ের আয়োজনে এক র‌্যালি ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। আলোচনা সভার অতিথি ছিলেন পার্বত্য জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ক্য শৈ হ্লা। পার্বত্য জেলা পরিষদের মুখ্য নির্বাহী কর্মকর্তা এটিএম কাউসার হোসেনের সভাপতিত্বে উপস্থিত ছিলেন জেলা প্রশাসনের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক মো. শফিউল আলম, সহকারী পুলিশ সুপার মো. রেজাউল হক, চট্টগ্রাম অঞ্চলের পাট কর্মকর্তা পার্থ সারথী মুৎসুদ্দীসহ বিভিন্ন অফিসের কর্মকর্তা ও বিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা।
এদিকে আলোচনা সভার প্রধান অতিথি পার্বত্য জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ক্যশৈহ্লা বলেন, সমগ্র বাংলাদেশে পাট অধিদপ্তরের ১৮টি আঞ্চলিক অফিস, ৪৩টি মুখ্য পরিদর্শকের কার্যালয় ও ৭৯টি পরিদর্শকের কার্যালয় রয়েছে। এসময় প্রত্যোককে পাটজাত দ্রব্য ব্যবহারের প্রতি গুরুত্ব দিয়ে তিনি বলেন, পাট খাতকে নিরাপদ, শক্তিশালী ও প্রতিযোগিতায় সক্ষম হিসাবে গড়ে তোলার লক্ষ্যে কাজ করছে পাট মন্ত্রণালয়।