রাঙামাটিতে বৈশাখী পূর্ণিমা অনুষ্ঠান

রাঙামাটি প্রতিনিধি

14

মহামতি বৌদ্ধের আদর্শ অনুসরণ না করায় পাহাড়ে সংঘাত বাড়ছে বলে মন্তব্য করেছেন পার্বত্য ভিক্ষু সংঘের কাউখালী উপজেলা সভাপতি ভদন্ত সুমনা জ্যোতি মহাথের। তিনি গত শুক্রবার উপজেলার ঘাগড়া চেলাছড়া দশবল বৌদ্ধ বিহারে শুভ বৈশাখী পুর্ণিমা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখছিলেন। তিনি আরো বলেন, বৌদ্ধের দেখানো পথ ছেড়ে আমরা অন্য পথে হাঁটছি। তাই আমাদের দুঃখ কাটছেনা। বিলাসিতা, শৌখিনতা আমাদের গ্রাস করে ফেলেছে। এটা পরিহার করতে হবে। মানব কল্যাণে এগিয়ে আসতে হবে। সংঘাতছাড়া ভয়ভীতিহীন ধর্মীয় অনুষ্ঠান পালনের পথ উন্মুক্ত করতে হবে। বৈশাখ মাসের পুর্নিমার দিন মহামতি বৌদ্ধের জন্ম জয়ন্তী। একই দিনে জন্ম, বৌদ্ধত্বলাভ ও মহাপরিনির্বান পৃথিবীর কোন মহাপুরুষের জীবনে একসাথে ঘটেনি। তাই বৌদ্ধের ত্রি-স্মৃতি বিজরিত এ দিনটি আমাদের কাছে পরম পাওয়া। শুক্রবার দিনব্যাপী আয়োজিত অনুষ্ঠানে বুদ্ধপূজা, পিন্ডদান, পঞ্চশীল প্রার্থনা, সংঘদান, অষ্টপরিস্কার দান, বুদ্ধমূর্তি দান, ধর্মীয় সভা এবং হাজার প্রদ¦ীপ প্রজ্জ্বলন করা হয়।
অনুষ্ঠানে ধর্মীয় দেশনা দেন পার্বত্য ভিক্ষু সংঘের কাউখালী উপজেলা সভাপতি ভদন্ত সুমনা জ্যোতি মহাথের, ঘাগড়া সদ্ধর্ম বৌদ্ধ বিহারাধ্যক্ষ ভদন্ত রতœপাল থের, চেলাছড়া দশবল বৌদ্ধ বিহারাধ্যক্ষ গুন প্রিয় ভিক্ষু। এছাড়া উপস্থিত ছিলেন ঘাগড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জগদিশ চাকমা, পার্বত্য ত্রাণ ফাউন্ডেশনের উপদেষ্টা বিহারী চাকমা, চেলাছড়া দশবল বৌদ্ধ বিহার পরিচালনা কমিটির সাবেক সভাপতি কৃষ্ণমনি চাকমা।
এতে বিহারের উপাসক-উপাসিকা পরিষদের কর্মকর্তাসহ বিপুল সংখ্যক পুণ্যার্থীর সমাগম ঘটে।