সাহিত্য পাঠচক্রের আলোচনা সভায় বক্তারা

রবীন্দ্রনাথ বাংলাসাহিত্যে উজ্জ্বলতম নক্ষত্র

3

চট্টগ্রাম সাহিত্য পাঠচক্রের উদ্যোগে বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের ৭৭তম প্রয়াণ দিবস স্মরণে বাংলাসাহিত্যের মুকুটহীন সম্রাট রবীন্দ্রনাথ আমাদের বাঙালির গর্ব ও অস্তিত্বের ঠিকানা শীর্ষক এক স্মারক আলোচনা সভা গত ৬ আগস্ট সন্ধ্যা ৭টায় সংগঠনের আহবায়ক বাবুল কান্তি দাশের সভাপতি সংগঠনের আন্দরকিল্লাস্থ অস্থায়ী কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত হয়। এতে প্রধান আলোচক হিসেবে আলোচনা করেন সাতকানিয়া পৌরসভার মেয়র কবি মোঃ জোবায়ের। সংগঠনের সদস্য সচিব আসিফ ইকবালের পরিচালনায় এতে আলোচক হিসেবে আলোচনা করেন রাজনীতিবিদ ও লেখক হায়দার আলী চৌধুরী, মুক্তিযোদ্ধা লেখক কালাম চৌধুরী, শিক্ষাবিদ অজিত কুমার শীল, সংগঠক শওকত আলী সেলিম, পল্লীকবি জসীম উদ্দীন স্মৃতি বৃত্তি পরীক্ষার আহবায়ক রতন দাশগুপ্ত, নারীনেত্রী সোমিয়া সালাম। এতে উপস্থিত ছিলেন দক্ষিণজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগনেতা এড. রোকনুজ্জামান মুন্না, উজ্জ্বল ধর, শিক্ষক সুমন চৌধুরী, রতন ঘোষ, সাখাওয়াত হোসেন, মো. ইমন, মো. ইমতিয়াজ প্রমুখ। সভায় প্রধান আলোচক তার বক্তব্যে বলেন রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর বাংলা সাহিত্যের এক গৌরবজ্জ্বোল সার্থক সাহিত্যিকের নাম। রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর বাংলা সাহিত্যের বটবৃক্ষ। রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর বাংলা সাহিত্যের প্রতিটি শাখা প্রশাখায় সমান দক্ষতার সাথে সাফল্য দেখিয়েছেন। যার হাত ধরে বাংলা সাহিত্য বিশ্বসাহিত্যে একটি অনন্য উচ্চতায় পৌঁছতে সক্ষম হয়েছেন। তিনি আরো বলেন রবীন্দ্রনাথ এমন একজন সাহিত্যিক যিনি একসাথে তিনটি দেশের জাতীয় সংগীত রচয়িতা। রবীন্দ্রনাথ ছাড়া বাংলা সাহিত্যকে কল্পনা করা যায় না। রবীন্দ্রনাথের সাহিত্যকর্ম চর্চার মাধ্যমে আমরা নিজেদের আলোকিত করার সুযোগ পাবো। বিজ্ঞপ্তি