রফিকুজ্জামান রণির একগুচ্ছ অণুগল্প

10

০১.
সাপ…
একটা সাপ আমার দিকে ধেয়ে আসতে আসতে হঠাৎ সে নারী হয়ে গেলো!
০২.
ঝাঁকচ্যুত পাখি…
ঝাঁকচ্যুত হুদহুদ উড়তে উড়তে বিলকিসের রাজ্যে ঢুকে পড়লো। ফিরে এসে রূপবতী বিলকিসের খবর দিলো সে বাদশার কানে।
যে রাতে বিলকিস এবং বাদশা দুজনেই বাসরলীলায় মত্ত, সে রাতেই পাখিটি টের পেলো তার দুটি চোখ আছে, তবু সে অন্ধবলাকা!
০৩.
আদিকালের মেয়েছেলে…
আদিকালের গল্প রণি বলে, একটি ছেলে আর একটি মেয়ে- দুজনেই ঝাঁপ দিলো নদীতে; পড়লো না কেউ জলে, এই পৃথিবী ভরে গেলো হাজার ফুল ও ফলে!
০৪
হস্তরেখা…
আমার হস্তরেখা এক আশ্চর্য রহস্যে ঢাকা। একদা হস্তখানা দেখিয়া গণক মহোদয় বলিলেন- ‘চক্ষু-মুদেন কাকা।’ মুদিলাম। একটু পরে খুলিয়া দেখি সামনে কেহ নাই। এই পৃথিবী ফাঁকা!
০৫.
নারীডিম…
নারীটির ডিম ছিলো পুরুষের পিঠে, সেই ডিম বেরিয়ে এলো রমণে। মা হওয়ার পরেই সে এই কথা বোঝে : পুরুষটি তখন যে ভ্রমণে!