রণবীর সিংকে চেনা দায়

10

কেরিয়ারে নানা রকম চরিত্রে অভিনয় করে অল্প সময়ের মধ্যে খ্যাতির শিখরে উঠেছেন বলিউড অভিনেতা রণবীর সিং। সেই ধারাবাহিকতায় এবার জয়েশভাই জোরদার রূপে হাজির হচ্ছেন নায়ক। যশ রাজ ফিল্মসের ব্যানারে নতুন পরিচালক দিব্যাঙ্গ ঠাক্করের নির্দেশনায় আসতে চলেছে রণবীরের ‘জয়েশভাই জোরদার’। স¤প্রতি মুক্তি পেয়েছে এই ছবিতে থাকা রণবীরের এক্সক্লুসিভ ফার্স্ট লুক। সেখানে নায়ককে দেখা যাচ্ছে এক ছাপোষা গুজরাটি ব্যক্তির বেশে। পেছনে ঘোমটা মাথায় অনেক নারী। সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রথম দর্শনে রণবীরের ফার্স্ট লুক দেখে তাকে চিনতে কষ্ট হয়েছে ভক্তদের। পরে চিনতে পেরে সকলেই তাদের মুগ্ধতা প্রকাশ করেছেন। এর আগে টেলিভিশনে বিজ্ঞাপনী প্রচারে গুজরাটির চরিত্রে দেখা গেলেও বড় পর্দায় এই প্রথম গুজরাটি সাজবেন রণবীর। নায়কের কথায়, নতুন পরিচালকের ‘মিরাকল স্ক্রিপ্ট’ শুনেই তার পছন্দ হয়ে গিয়েছিল। নির্মাতারা দাবি করছেন, এ ছবির পরতে পরতে যেমন থাকবে হিউমার, তেমনই থাকবে নারী ক্ষমতায়নের বার্তা।রণবীর এই কাহিনির ‘আনকনভেশনাল’ নায়ক। নারীদের রক্ষাকর্তা হিসেবে অবতীর্ণ হন তিনি। যদিও চরিত্রটি চিরাচরিত কর্তৃত্ব ফলানো পুরুষের নয়। নারী-পুরুষের সমান অধিকারে বিশ্বাস করে জয়েশভাই। চরিত্র আয়ত্তে আনতে বেশ পরিশ্রমও করতে হয়েছে রণবীরকে। লুক পাল্টে ফেলতে কয়েক কিলো ওজনও ঝরাতে হয়েছে তাকে।
রণবীর বলেন, ‘এই ধরনের চরিত্র আগে করিনি। তাই জয়েশভাই আমার কাছে এক রকম চ্যালেঞ্জ। চার্লি চ্যাপলিনের কথা ধার করে বলা যায়, এই লোকটিও নিজের দুঃখ নিয়ে মজা করতে পারে। কঠিন পরিস্থিতিতে সে সাধারণ থেকে অসাধারণ হয়ে ওঠে, বলেন রণবীর। ছবির নায়িকা হিসেবে আছেন ‘অর্জুন রেড্ডি’ খ্যাত শালিনী পান্ডে। রণবীর সিং বর্তমানে কবির খান পরিচালিত ‘৮৩’ ছবির শুটিং নিয়ে ব্যস্ত। এই ছবিটি নির্মিত হচ্ছে ভারতের ১৯৮৩ সালের ক্রিকেট বিশ্বকাপ জয়ী দলের অধিনায়ক কপিল দেবের জীবনীর ওপর। কপিলের চরিত্রে আছেন রণবীর। তার স্ত্রীর ভূমিকায় অভিনয় করছেন বাস্তবের সহধর্মিণী দীপিকা পাড়–কোন।