রক্তাবেগের একুশ

সাঈদুল আরেফীন

8

একুশের রক্তাবেগ আজো ফিরিয়ে দেয় বসন্ত দুপুর,
বাঁধভাঙা জোয়ারে সেদিন
মিছিল ছিলো। স্লোগান ছিলো। ছিলো বিস্মিত চোখের
স্বপ্ন। মৃত্তিকায় জমে থাকে আগুন- শব্দাগুন,
ভাষাহতের দাবি আবেগেী কন্ঠে উচাটন করে বুক,
একটাই উচ্চারণ, একটাই পথ খোলা বাংলায়
মা- মাটি- মানুষ। সভ্যতার প্রশ্ন আবেগের দরোজায়
করে কুঠারাঘাত। সকালের বিবর্ণ আলোয় বর্ণযোদ্ধারা
আস্তানা গাড়ে মেডিক্যাল চত্বরে।
¤্রয়িমাণ ছিলো সেদিনের আকাশ। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়
ঢাকা মেডিক্যাল শব্দতরঙ্গে এঁকেছিলো স্বপ্ন মানচিত্র
এক। জাতিসত্তার মানবীয় আবেদন ইতিহাসের
আলোয় ফিরে আসে
বিশ্ব নাগরিক অধিকার। ভাষাহতের ক্ষত মুছে যায়
স্বপ্ন শৈলীর ভেতর। যুগ যন্ত্রণার পিছুটান পৃথিবী
এক আন্তর্জাতিক চর্যাপদের সন্ধান দেয়
জাতি বর্ণ গোত্র ধ্বংসাবশেষ সভ্যতা মা ভাষার।